ফেসবুকে লগ ইন করলেই আপনার নিউজ ফিডেও নিশ্চয় প্রিজমা ও পোকেমন গো-এর আপডেট চোখে পড়েছে। পোকেমন গো-ই বা কী? এ নিয়ে জানুন কিছু তথ্য- পোকেমন গো:  ১৯৯০-এর শেষের দিকে ও ২০০০ সালের গোড়ায় পোকেমন কার্টুন ও খেলনায় গোটা দুনিয়া মজে ছিল। সেই জনপ্রিয় কার্টুন চরিত্রই ফের নতুন ভাবে হাজির হয়েছে Nintendo-র হাত ধরে। Pokemon Go একটি গেম যেটি খেলা যায় স্মার্টফোনে। iOS ও Android ইউজাররা এই গেম খেলতে পারবেন। ভার্চুয়াল রিয়ালিটি নির্ভর এই গেম-এ বাস্তবের দুনিয়া থেকে আপনাকে পোকেমনের চরিত্রগুলি সংগ্রহ করে রেড, ব্লু বা ইয়েলো টিমে যোগ দিয়ে অন্যদের সঙ্গে লড়াই করতে হবে। ধাপে ধাপে আরও শক্তিশালী হবে আপনার পোকেমন। এই গেমের জনপ্রিয়তার মূল হাতিয়ার হল এটি একটি augmented reality নির্ভর গেম। মোবাইলের লোকেশন ও ইন্টারনেট কানেকশন চালু রাখলে আপনি রাস্তাঘাটে পোকেমন চরিত্র খুঁজে পাবেন। এই মুহূর্তে অ্যান্ড্রয়েড মার্কেটে সবচেয়ে জনপ্রিয় গেম হল পোকেমন। মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটারের চেয়েও বেশি অ্যাক্টিভ ইউজার রয়েছে পোকেমন গো-র। বিশ্বজুড়ে পোকেমন ফ্যানরা পার্কে-শপিং মলে পোকেমন খুঁজে বেড়াচ্ছেন। এ নিয়ে সড়ক দুর্ঘটনাও ঘটেছে। গাড়ি-ঘোড়া দেখে পোকেমন খুঁজে বেড়ানোর জন্য বেশ কয়েকজনকে পুলিশ গ্রেফতারও করেছে।  প্রিজমা: ইনস্টাগ্রাম-এর মতো ফটো এডিটিং অ্যাপকেও হারিয়ে দিয়েছে প্রিজমা-র জনপ্রিয়তা। সহজ করে বললে, প্রিজমা হল একটি ফটো ফিল্টার iOS অ্যাপ। আইফোন ইউজাররা বিনামূল্যে এই অ্যাপ ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন। এর ফিল্টারগুলির জন্যই এই অ্যাপ নিয়ে এত মাতামাতি। একজন পেশাদার চিত্রশিল্পীরা ঠিক যেভাবে আপনার পোট্রেট আঁকবেন, artificial intelligence ব্যবহার করে এই অ্যাপও আপনার যে কোন ছবিকে অনেকটা সেরকম দেখতে করে তোলে। এক ঝলকে দেখলে মনে হবে, কোন আর্ট গ্যালারিতে সাজিয়ে রাখার মতো ছবি। যে কোন সাধারণ ছবিকেও ‘প্রিজমা’ আকর্ষণীয় করে তোলে চোখের নিমেষে। এখন ঘটনা হল, অ্যান্ড্রয়েড মার্কেটে প্রিজমা-র একটি ‘বেটা ভার্সন’ পাওয়া যাচ্ছে, কিন্তু সেটি একেবারেই প্রাথমিক স্তরের। ‘প্রিজমা’-র অফিসিয়াল ভার্সন আগস্ট মাসে গুগল প্লে স্টোরে লঞ্চ করবে বলে শোনা যাচ্ছে।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.