ভাই, কি কম্পিউটার কিনলেন ? কনফিগারেশন কি ? প্রশ্ন টি করলেই আমরা আমাদের কম্পিউটার এর সকল হার্ডওয়্যার এর কথা বলি, কখনও বা আবার ডিটেলসও বলে দেই, কিন্তু একটা জিনিষের কথা আমরা কখনই বলি না। আমি নিজেও বলি না। আমরা সব সময় খুবই অবজ্ঞা করে থাকি। এমন কি হেভি পাওয়ার ফুল কম্পিউটার নিলাম,কিন্তু যে জিনিষ টির কথা বলছি, তার সম্পর্কে কোন কিছু কিন্তু চিন্তাই করছি না।

2011-02-20_155814কি ধরতে পারছেন আমি কিসের কথা বলছি? ঠিক ধরেছেন, আমি কম্পিউটার এর সবচাইতে সবচাইতে এবং সবচাইতে গুরুত্বপূর্ন হার্ডওয়্যার, পাওয়ার সাপ্লাই এর কথা বলছি। আজকে আমার এ পোস্ট টিতে কম্পিউটার এর পাওয়ার সাপ্লাই নিয়ে শেয়ার করব।

পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট বা পিএসইউ(PSU) এর বেসিক কাজ হচ্ছে আমাদের বিদ্যুৎ লাইনের থেকে ইলেক্ট্রিসিটি সংগ্রহ করে তাকে কনভার্ট করা। আমাদের বিদ্যুৎ এর লাইনে থাকে ২২০ থেকে ২৪০ ভোল্ট (নর্থ আমেরিকা, সাউথ আমেরিকার কিছু অংশে, জাপান এবং তাইওয়ান এ কিন্তু ১১০ থেকে ১১৭ ভোল্ট ) এবং তা AC মুডে থাকে। আমাদের কম্পিউটার এর পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি এই বিদ্যুৎ কে ১২, ৬ এবং ৩.৩ ভোল্ট- DC, তে কনভার্ট করে।

রেটিংঃ

যদিও আমরা সবাই জানি ওয়াট (watt) কি, তার পরেও আসুন অনেক দিন আগের জানা টাকে একটু ঝালাই করে নেই;

ওয়াট = ভোল্টেজ x এম্পেয়ার (W= V x A)

সাধারনত সব ধরনের কম্পিউটার এর কাজের জন্য সব ধরনের পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এর দরকার হয় না। যেমন;

  • যে সমস্ত কম্পিউটার এ শুধু মাত্র টুক টাক কাজ করা হয়, (ইন্টারনেট সার্ফিং, মুভি দেখা, খুবি ছোট গেম খেলা, মাইক্রোসফট অফিস এ কাজ করা) তাদের জন্য ৩০০ ওয়াট এর একটি পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট যথেষ্ট।
  • মাঝারি ধরনের একটি গেমিং পিসির জন্য পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট হওয়া উচিত, ৫০০ থেকে ৮০০ ওয়াট এর।
  • হাই এন্ড পিসি র জন্য দরকার ৮০০ থেকে ১৪০০ ওয়াট এর পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট।
  • খুবি শক্তিশালি সার্ভার (বেশির ভাগ ক্ষেত্রে গেমিং সার্ভার) এর জন্য ২ কিলো ওয়াট এর পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট লাগতে পারে।

ছোট একটি অংকঃ

ধরুন আপনি একটি পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট কিনতে বাজারে গেলেন। দোকানদার আপনার সামনে দুটি পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট রেখে বললেন, আপনি যেটা নিতে চান। একই দাম দুইটার।

আপনি পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এর গায়ে দেখলেন, দুটোর দুই ধরনের রেটিং করা, একটি তে লিখা আছে। “peak rating of 550 watts at 25°C, with 25 amps (300 W) on the 12 volt line”

অপরটিতে লিখা আছে, “ continuous rating of 450 watts at 40°C, with 33 amps (400 W) on the 12 volt line”

আপনি বলুন কোনটি নেবেন ? আমি কিন্তু দ্বিতীয় টি নিবো, কেন জানেন? দেখুন ২য় টি আপনাকে সবসময় ৪৫০ ওয়াট সাপ্লাই করতে পারে, যেখানে প্রথম টি আপনাকে সর্বোচ্চ (সব সময় নয় কিন্তু) ৫৫০ ওয়াট দিতে পারে।

কার জন্য কত ওয়াট দরকারঃ

17-103-457-03

  • নরমাল এজিপি কার্ডঃ ২০ থেকে ৩০ ওয়াট।
  • পিসিআই কার্ডঃ ৫ ওয়াট
  • SCSI পিসিআই কার্ডঃ ২০ থেকে ২৫ ওয়াট।
  • ফ্লপি ডিস্ক ড্রাইভঃ ৫ ওয়াট
  • নেটওয়ার্ক ইন্টারফেস কার্ডঃ ৪ ওয়াট
  • সিডি রম ড্রাইভঃ ১০ থেকে ২৫ ওয়াট।
  • র‍্যামঃ ১০ ওয়াট (প্রতি ১২৮ মেগাবাইটের জন্য)
  • ৫৪০০ আর পি এম হার্ড ড্রাইভঃ ৫ থেকে ১১ ওয়াট
  • ৭২০০ আর পি এম হার্ড ড্রাইভঃ ৫ থেকে ১৫ ওয়াট
  • মাদারবোর্ড (সিপিউ, র‍্যাম ছাড়া)ঃ ২০ থেকে ৩০ ওয়াট।

গঠনঃ

power-supply-connections-labeled

বেশির ভাগ পি এস ইউ স্কোয়ার শেপ, মেটাল বক্সের মধ্যে থাকে। সাধারনত দৈর্ঘ ৮৬ মিলিমিটার; প্রস্থ ১৫০ মিলিমিটার; এবং উচ্চতা ১৪০ মিলিমিটার;

কানেক্টরঃ

power_connectors_atx

কমবেশি সাত ধরনের কানেক্টর দেখাযায় এখনকার দিনের এ টি এক্স পাওয়ার সাপ্লাই এ। এগুলো হচ্ছে,

২৪ পিন এ টি এক্স (P1)ঃ মাদারবোর্ড এ পাওয়ার সাপ্লাই করে থাকে। সবচাইতে বড় এই কানেক্টরটি তে মোট ২৪ টি পিন থাকে, আসুন দেখে নেই এই ২৪ টি পিনের কোনটি কি কাজ করে,

24 PIN ATX

টিপসঃ ছোট্ট একটা টিপস বলি, আপনার পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট কাজ করছে কি না, জানার জন্য, ২৪ পিন এ টি এক্স কানেক্টর টির সবুজ এবং কালো রঙ এর পিন দুটি কে সর্ট করে দিন। এবার পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি চালু করে দেখুন, ফ্যান ঘুরছে ? ঘুরলে আপনার পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি কাজ করছে। (বিঃ দ্রঃ এটি একটি খুবি প্রাথমিক পরীক্ষা।)

৪ পিন মোলেক্স (4 pin molex): কম্পিউটার এর বিভিন্ন পেরিফেরাল কে চালাবার জন্য এই ৪ পিন এর কানেক্টর টি ব্যবহার করা হয়। যেমন, হার্ড ড্রাইভ, সিডি / ডিভিডি রম ইত্যাদি। লক্ষ্যনীয় বিষয় হচ্ছে, হলুদ রঙ এর তারে +১২ ভোল্ট, লালে +৫ ভোল্ট, এবং কালো হচ্ছে গ্রাউন্ড।

পিন এফ ডি ডি কানেক্টরঃ এই কানেক্টর টী শুধু মাত্র ফ্লপি ডিস্ক ড্রাইভ এ পাওয়ার সাপ্লাই দেয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়।একে অনেক সময়, মিনি মোলেক্স বলেও ডাকা হয়। এখানেও লক্ষ্যনীয় বিষয় হচ্ছে, হলুদ রঙ এর তারে +১২ ভোল্ট, লালে +৫ ভোল্ট, এবং কালো হচ্ছে গ্রাউন্ড।

৪ পিন, পি৪_১২ভোল্টঃ এই পিন্ টি এ টি এক্স পি এস ইউ এর নতুন সংযোজন।একে পি৪ পাওয়ার কানেক্টর বলেও ডাকা হয়। পেন্টিয়াম ৪ প্রসেসর থেকে এর যাত্রা শুরু। পেন্টিয়াম ৪ প্রসেসর এর জন্য আলাদা ভাবে ১২ ভোল্ট বিদ্যুৎ প্রদান করাই এর কাজ।

সিরিয়াল এ টি এ পাওয়ার কানেক্টরসঃ আমাদের কম্পিউটার এর সাটা হার্ড ড্রাইভ এবং সাতা সিডি/ ডিভিডি রমের জন্য একটি স্পেশাল ধরনের ১৫ পিনের পাওয়ার কানেক্টর। এই ১৫ পিনের মধ্যে, ৩.৩ , ৫ এবং ১২ ভোল্ট সাপ্লাই হয়।

৬ পিন পিসিআই এক্সপ্রেস পাওয়ার কানেক্টরঃ আধুনিক যুগের গ্রাফিক্স কার্ড গুলো যে অনেক বেশি পরিমান বিদ্যুৎ ব্যবহার করে, তাতো আমরা আগেই জেনে গেছি।আধুনিক বেশ কিছু গ্রাফিক্স কার্ড এর জন্য এই  ৬ পিন পিসিআই এক্সপ্রেস পাওয়ার কানেক্টর, যা গ্রাফিক্স কার্ড কে আলাদা ৭৫ ওয়াট পর্যন্ত পাওয়ার দিতে সক্ষম।

৬ পিন আউক্স পাওয়ার কানেক্টরঃ এই পাওয়ার কানেক্টর টির, সাধারন কম্পিউটার এ তেমন একটা কাজে না লাগলেও বিভিন্ন ধরনের এক্সপেনশন কার্ড এ এই ধরনের পাওয়ার কানেক্টর ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

কিছু তথ্যঃ

  • আপনি জানেন কি, একটি পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এর গড় আয়ু কত ? খুব বেশি না, মাত্র ১ লক্ষ্য ঘন্টা বা ১১ বছর (প্রায়)। তবে এটা নির্ভর করে, আপনি আপনার কম্পিউটার এর পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এর কিভাবে যত্ন নিচ্ছেন। পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি কি বেশি গরম করে ফেলছেন ? ঠিক মতন এর গরম বাতাস যেন বের হয়ে যায়, সে দিকে লক্ষ্য রাখছেন ? এর ফ্যানে যেন ধুলা বালি না জমে তা দেখছেন তো ? ইত্যাদি।
  • যে কম্পিউটার সিস্টেম এ ঠান্ডা বাতাস চলাচলের সব রকমের ব্যবস্থা আছে, সেই কম্পিউটার এর পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি ততো ভালো থাকে।
  • আধুনিক পাওয়ার সাপ্লাই গুলো এমন ভাবে তৈরী যে, আপনার কম্পিউটার কে সাট ডাউন করে রাখলেও আপনার কী বোর্ড এর কী বোর্ড পাওয়ার অন (Key Board Power ON – KBPO), Wake- On- LAN, Wake-On- Ring , পদ্ধতিতে চালু করে ফেলতে পারবেন।

আজ তাহলে এ পর্যন্তই থাক। আপনাদের কাছে কেমন লাগল এই পোস্টটি আশা করি জানাতে ভুলবেন না।

**তথ্য এবং ছবি গুলো ইন্টারনেট থেকে নেয়া হয়েছে।

comments

34 কমেন্টস

  1. দারুন লিখেছেন রিয়াজ ভাই। পাওয়ার সাপ্লাইকে আসলেই আমরা তেমন গুরুত্ব দেই না। পাওয়ার সাপ্লাই একটা আছে জানি, তবে কত ওয়াটের সেটা নিয়ে কখনো মাথা ঘামাইনি 😐

    • আগে মাদারবোর্ড নিয়ে ৮৫% লিখা লিখে রেখেছি। কিন্তু পাওয়ার সাপ্লাই নিয়ে লিখার কথা মাথা তে আসতেই লিখে ফেললাম।
      ভালো লেগেছে জেনে আমার কাছেও ভালো লাগল।
      একলা আপনার দোষ না রে ভাই। আমিও আগে দিতাম না। কিন্তু এখন দেই। ইউকে তে মনে হয় না নন ব্রান্ড কোন পাওয়ার সাপ্লাই কেউ ব্যবহার করে। আমার মনে হয়, আপনার টা ঠিকই আছে। 😉

  2. আসলে পাওয়ার সাপ্লাই কম্পিউটারে খুবেই গুরুত্তপূর্ন ভূমিকা রাখে।৪\৫ দিন পূর্বে আমার একটা কম্পিউটারকে ৪ বার ফরমেট দিলাম।কি হলো কি হলো কিছুই বুজতেছিনা। সব ঠিক আছে কিন্তু একেবারে স্লো আসে নেট। পরে তার পাওয়ার সাপ্লাই চেঞ্জ করে দেখলাম।বাপের বেটা সাদ্দাম হয়ে গেছে। ধন্যবাদ আপনাকে টিউনের জন্য।

  3. ভাইয়া একটা জিনিস খেয়াল করলাম।আপনি 300wt ও 500wt পাওয়ার সাপ্লাই কথা লিখেছেন।কিন্তু কোথাও 400wt পাওয়ার সাপ্লাইয়ের কথা দেখলাম না!!এ বেচারা কি দোষ করলো???না আমার পাওয়ার সাপ্লাই 400wt বলেই লিখলেন না??!!আবার দেখলাম 300wt ছোট গেমের আর 500wt মাঝারি গেমের জন্য দরকার।তাইলে 400wt কোন কাজে লাগে?

    • সুদিপ্ত দা, এটা মনে হয় আমারই ভুল হয়ে গেছে। তবে ৪০০ ওয়াট এর পাওয়ার সাপ্লাই ও মাঝারি মানের গেমিং মেশিনের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

    • ইনশাল্লাহ লিখতেই থাকব, যত দিন আমাকে বিজ্ঞান প্রযুক্তি তে নিষিদ্ধ না করা হবে 😉
      sanjib84 আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

  4. আপনি অনেক সুন্দর লিখেছেন, আশা করি নতুন কিছু জলদি পাব।
    ধন্যবাদ।

  5. বেশি কিছু বলবো না। এক কথায় অসাধারণ। আপনি তো মনে হচ্ছে হার্ডওয়্যার এক্সপার্ট 😉 . আপনাকে ধন্যবাদ কারণ এতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

  6. কঠিন লিখছেন

    পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি কি বেশি গরম করে ফেলছেন ? বুজব কিভাবে

    ঠিক মতন এর গরম বাতাস যেন বের হয়ে যায়, সে দিকে লক্ষ্য রাখছেন ? এর ফ্যানে যেন ধুলা বালি না জমে তা দেখছেন তো ? ইত্যাদি। বুজব কিভাবে

    যে কম্পিউটার সিস্টেম এ ঠান্ডা বাতাস চলাচলের সব রকমের ব্যবস্থা আছে, সেই কম্পিউটার এর পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি ততো ভালো থাকে। করব কিভাবে?

    • পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এবং সম্পূর্ন কম্পিউটার কে প্রতি মাসে একবারের জন্য হলেও ব্লোয়ার দিয়ে পরিষ্কার করে ফেলা উচিত। এতে শুধু মাত্র আপনার পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এর ফ্যান টি যে পরিষ্কার হবে তা নয়। বরং আপনার সিপিইউ এবং গ্রাফিক্স কার্ড এর ফ্যান টিও পরিষ্কার হয়ে যাবে। ধূলো জমে গিয়ে ফ্যানের ব্লেড কে ভারি করে ফেলে , যার জন্য ফ্যান যদি ঠিক মতন না ঘুরে তাহলে ভেতরের গরম বের করে দিতে পেরবে না। আশা করি আপনি আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে গেছেন।
      আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

  7. ভালো লাগলো। আসলে আমরা কম্পিউটার পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এর কথা কেউ চিন্তা ও করি না। এটাই যদি ঠিক না থাকে তাহলে পুরা কম্পিউটার এ বেকার। ধন্যবাদ রিয়াজুল ভাই কম্পিউটার পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট এর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য।

  8. বেশ তথ্যবহুল ও সাজানা গুছানো একটি লিখা। ধন্যবাদ হাশেম ভাইয়া।

  9. লেখাটার গুরুত্ব বুঝতে পারবে সে নির্দ্বিধায় ৫/৫ রেটিং দিবে… মজার এবং দুঃখের কথা হল অধিকাংশ পিসি ইউজার এমন কি Geek পর্যন্তও এইটার গুরুত্ব জানেনা।

  10. রিয়াজুল ভাই,
    ধন্যবাদ। আপনার পোষ্টটি চমৎকার হয়েছে। কম্পিউটার কেনা ও পরর্বতী সময়েও আমরা পাওয়ার সাপ্লাইকে খুব একটা গুরুত্ব দিই না। তবে এখন থেকে আর ভুল হবে না। কারণ, পাওয়ার সাপ্লাই-এর অনেক অজানা বিষয় আজ জানতে পারলাম।

  11. প্রেরক :
    মাহফুজ, মোহাম্মাদপুর, ঢাকা । ই-মেইল # mahfuz08@yahoo.com

    ব্লগারদের কাছে কিছু প্রশ্নের উত্তর চাই।

    ১/ উইন্ডোজ # ৭ উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব কিনা ?
    ৩২ বিট এবং ৬৪ বিট – এর মধ্যে কোনটি উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব ?
    উইন্ডোজ # ৭ – এর মধ্যে কি কি ভাগ আছে এবং কোনটি ভালো ?
    ১ বা ২ টেরাবাইট হার্ডডিস্কের পার্টিশন কি পরিমাণে ভাগ করা হবে ?
    আমি যদি অন্যান্ন সফ্টওয়ার প্রোগ্রাম ফাইলের ডিরেক্টরি এবং মাই ডকুমেন্ট সি এর পরিবর্তে ডি ড্রাইভে
    ইন্সটল করতে চাই তবে উইন্ডোজ # ৭ – এ প্রোগ্রাম ফাইলের পাথ (রুট ডিরেক্টরি) কি ভাবে পরিবর্তন
    করতে হয় ?
    বড় হার্ডডিস্কের ব্যবহারের ফলে উইন্ডোজ # ৭ বা এক্স-পিতে কোন সমস্যা হয় কিনা ?

    ২/ আমার কম্পিউটারে ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক আছে যা ৮০ গিগা. । আমি একে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে
    রুপান্তর করতে চাই।
    ‌ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করার সহজ উপায় কি ?
    ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে ইউ.এস.বি এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করা যায় কি না এবং কি ভাবে?

    বি.দ্রু. : দয়া করে উত্তরটি অভ্র বা ইউনিকোডের মাধ্যমে বাংলায় এম.এস.ওয়ার্ড ফাইলে লিখে তা ই-মেইলে
    যুক্ত করে পাঠান ।

  12. প্রেরক :
    মাহফুজ, মোহাম্মাদপুর, ঢাকা । ই-মেইল # mahfuz08@yahoo.com

    আমার কম্পিউটার আপগ্রেড করব। তাই ব্লগারদের কাছে কিছু প্রশ্নের উত্তর চাই। আমি কম্পিউটারটি ২৪/০৭/২০০৬ ইং তারিখে কিনেছি। বর্তমানে কোন ওয়ারেন্টি নেই । তাই উল্লেখিত সব গুলো বিষয় আপগ্রেড হবে কিনা দ্রুত জানতে চাই। আমার বাসায় কোন টেকি লোক নেই। দয়া করে উত্তরটি অভ্র বা ইউনিকোডের মাধ্যমে বাংলায় এম.এস.ওয়ার্ড ফাইলে লিখে তা ই-মেইলে যুক্ত করে পাঠান ।

    পিসি কনফিগারেশন হচ্ছে :

    প্রসেসর :
    ইন্টেল পেন্টিয়াম ৪ , সি পি ইউ : ২.৬৬ গিগাহার্টজ।

    মাদারবোর্ড :
    মডেল নেম # জিএ – ৮❙৯১৫ এমডি – জিভি
    ইন্টেল # ৯১৫ জিভি / আই.সি.এইচ. # ৬
    পি ৪ সকেট ৭৭৫ / মাইক্রো এ.টি.এক্স
    গিগাবাইট এল. জি. এ. ৭৭৫, ইন্টেল পেন্টিয়াম ৪ ।
    ইন্টেল বায়স # ইন্টেল ৯১৫ জিভি ফর ৮❙৯১৫ এমডি – জিভি এফ ২।

    অপারেটিং সিস্টেম :
    উইন্ডোজ এক্স-পি প্রফেশনাল।

    মনিটর :
    ১৭ ইঞ্চি সিআরটি মনিটর ।
    র্যা ম :
    ডিডিআর -২ র্যা ম # ১ গিগাবাইট ।

    নিচের বিষয় গুলো আপগ্রেড হবে। কিন্তু প্রসেসর এবং মাদারবোর্ড বদল করা হবে না।

    ১/ আমি ডিডিআর -২ র্যা ম ২ গিগাবাইট কিনব। মাদারবোর্ডে ২ গিগাবাইট পর্যন্ত ব্যবহার করা যায়
    এবং ২টি র্যাামের স্লট আছে ।
    আমি কি ডিডিআর -২ র্যা ম ২ গিগাবাইটের ১টা কিনব, নাকি ১ গিগাবাইটের ২টা কিনব ?
    যেহেতু ২টি র্যাামের স্লট আছে , তাই ২ টি নাকি ১ টি র্যাখম , কোনটি বেশী কর্যকর হবে ?
    র্যা ম কোনটি কিনবো , তা কি ভাবে নির্ধারণ করব ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ২/ আমি ১ অথবা ২ টেরাবাইট সাটা হার্ডডিস্ক কিনব।
    উপরের কনফিগারেশনে ১ অথবা ২ টেরাবাইট সাটা হার্ডডিস্ক ব্যবহার করা যাবে কিনা ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৩/ উইন্ডোজ # ৭ উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব কিনা ?
    ৩২ বিট এবং ৬৪ বিট – এর মধ্যে কোনটি উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব ?
    উইন্ডোজ # ৭ – এর মধ্যে কি কি ভাগ আছে এবং কোনটি ভালো ?
    ১ বা ২ টেরাবাইট হার্ডডিস্কের পার্টিশন কি পরিমাণে ভাগ করা হবে ?
    আমি যদি অন্যান্ন সফ্টওয়ার প্রোগ্রাম ফাইলের ডিরেক্টরি এবং মাই ডকুমেন্ট সি এর পরিবর্তে ডি ড্রাইভে
    ইন্সটল করতে চাই তবে উইন্ডোজ # ৭ – এ প্রোগ্রাম ফাইলের পাথ (রুট ডিরেক্টরি) কি ভাবে পরিবর্তন
    করতে হয় ?
    বড় হার্ডডিস্কের ব্যবহারের ফলে উইন্ডোজ # ৭ বা এক্স-পিতে কোন সমস্যা হয় কিনা ?

    ৪/ সাটা ডিভিডি রাইটার কিনব ।
    সাটা ডিভিডি রাইটার পাওয়া যায় কিনা এবং কোথায় ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৫/ গ্রাফিক্স কার্ড কিনব , যাতে ভারি গেম খেলা যায় ।
    আমার মাদারবোর্ড এবং উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে কোন ধরনের এবং কত শক্তিশালী গ্রাফিক্স
    কার্ড কিনব ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৬/ ইন্টারনাল ডায়াল-আপ মডেম কিনব, যাতে ইন্টারনেট, ফোন এবং ফ্যাক্স ব্যবহার করা যায় ।
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৭/ ইন্টারনাল টিভি কার্ড কিনব ।
    ডিস লাইন ছাড়া ইন্টারনাল টিভি কার্ডের মধ্যমে কি ভাবে টিভি দেখা যায় ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৮/ পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট কিনব , যাতে উপরের কনফিগারেশনে কোন ধরনের সমস্যা না হয় ।
    কত ওয়াট পিএসইউ কিনতে হবে ?
    কোন ডিভাইস কি পরিমাণ কারেন্ট টানবে ?
    অধিক পাওয়ারের পিএসইউ কিনলে আইপিএস এর ব্যাকআপ কমে যায় কিনা ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৯/ আমি ট্রান্সসেন্ড জে এফ ৩০ পেন-ড্রাইভ ব্যাবহার করি, যা ৪ গিগাবাইট। এটা ৩/৪ বছর আগে কিনা
    হয়েছে, এটা উইন্ডোজ এক্স-পি সাপোর্ট করে।
    আমি এটা উইন্ডোজ # ৭ এর সাথে চালাতে পারব কিনা ?

    ১০/ আমার মাদারবোর্ডে কোন ধরণের এবং ক্ষমতা সম্পূর্ণ গ্রাফিক্স কার্ড বিল্টইন আছে , তা কি ভাবে বুঝব ?
    মাদারবোর্ডের কনফিগারেশন কি ভাবে লিখে পাঠাতে হয় ?

    ১১/ মাদারবোর্ডের ফিচারে দেখা যায় যে, চিপসেট , অনবোর্ড ল্যান, আইডিই কানেকশানস,অনবোর্ড সাটা –
    এ ( সাপোর্টেট অন দি উইন ২০০০ / এক্স-পি অপারেটিং সিস্টেমস ) লিখা আছে ।
    উইন্ডোজ # ৭ অপারেটিং সিস্টেম চালু করলে ব্রডব্যান্ড লাইন বা অন্য কোনো ইন্টারনেট লাইনে
    কোনো সমস্যা হবে কিনা ?
    চিপসেটের ক্ষেত্রে উইন্ডোজ # ৭ অপারেটিং সিস্টেম চালু করলে কি ধরনের সমস্যা হবে ?

    ১২/ উইন্ডোজ # ৭ এবং উইন্ডোজ এক্স-পি এর মধ্যে কোনটি কেন ব্যাবহার করা উচিত বা ভাল ?
    ৩২ বিট এবং ৬৪ বিট – এর মধ্যে কোনটি কেন সুবিধাজনক বা অসুবিধাজনক ?

    ১৩/ বর্তমান মাদারবোর্ডের পরিপ্রেক্ষিতে আমি যদি নতুন প্রসেসর কিনতে চাই, তবে ইন্টেলের কোন ধরনের
    এবং কি পরিমাণ শক্তিশালী প্রসেসর কিনা যাবে ?

    ১৪/ আমি কম্পিউটারটি ২৪/০৭/২০০৬ ইং তারিখে কিনেছি। বর্তমানে কোন ওয়ারেন্টি নেই।
    তাই উল্লেখিত সব গুলো বিষয় প্রসেসর এবং মাদারবোর্ড বদল না করে আপগ্রেড হবে কিনা ?

    ১৫/ ব্রাউজারে অভ্র কিবোর্ডে লিখতে গেলে যুক্ত অক্ষর হয় না ।
    যুক্ত অক্ষরের মাঝে ্‌ থাকে ।
    যেমন :
    শিক্ষা = শিক্‌ষা
    এর ফলে গুগল সার্চ ঠিক মত হয় না।
    এই সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় কি ?

    ১৬/ ফায়ার ফক্স # ৪ – এর এড-অনস ইন্সটল করা যাচ্ছে না।
    কাজেই ব্যাকআপ এড-অনস পাওয়া গেলে তা ইন্সটল করা যেত।
    এটা কোথায় পওয়া যাবে ?

    ১৭/ আমার কম্পিউটারে ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক আছে যা ৮০ গিগা. । আমি একে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে
    রুপান্তর করতে চাই।
    ‌ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করার সহজ উপায় কি ?
    ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে ইউ.এস.বি এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করা যায় কি না এবং কি ভাবে?

    ১৮/ আমার কম্পিউটারে ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি এন্টিভাইরাস আছে। আমার ইন্টারনেট কানেকসান আছে।

    বিভিন্ন পত্রিকায় দেখলাম ইন্টারনেট কানেকসান থাকলে এন্টিভাইরাসের পাশাপাশি ইন্টারনেট সিকিউরিটি
    এবং এন্টিম্যালওয়ার ইন্সটল থাকতে হবে।তার মানে উক্ত ৩ টি জিনিস কি একই সাথে ইন্সটল থাকতে হবে ?

    ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি এন্টিভাইরাসের পাশাপাশি আর কি কি সতর্কতা মূলক জিনিস ইন্সটল এক সাথে রাখা যাবে ?

    ফ্রি হিসাবে যে সব সতর্কতা মূলক জিনিস ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি এন্টিভাইরাসের পাশাপাশি একই সাথে
    রাখা যাবে সেগুলোর মধ্যে সব চেয়ে ভালো কোন গুলা ?

    যেমন নড ৩২ তেমন ভাল লিন্ক চেকারের নাম কি ?

    ভাল পি ডি এফ চেকার হিসেবে কি ব্যবহার করা যায় ?

    উপরের সব গুলা কি একই সাথে ব্যাবহার করা যায়, যেমন: ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি ও পান্ডা ভ্যাকসিন?

    ম্যালওয়ার কম্পিউটারে ঢুকে গেলে কি করে বুঝব এবং কি করব ?

    পেনড্রাইভে যদি অন্য কম্পিউটার থেকে আগে থেকেই ম্যালওয়ার autorun.inf ফাইল প্রবেশ করে তবে
    এবং তা ইতিমধ্যে আমার কম্পিউটারে ব্যবহার করা হয় তবে এখন কি করা যাবে ?

    ভাইরাস মুক্ত রাখার জন্য এডবি রিডারে স্ক্রিপ্টকে নিষ্ক্রিয় করার জন্য পিডিএফ এডিট অফসনে গিয়ে
    Enable menu items JavaScript execution privileges – টিক চিন্হ দিয়ে ওকে করতে হবে কিনা ?

    দয়া করে উল্লেখিত সব গুলো বিষয় প্রশ্নের
    উত্তর দিলে বাধিত হব ।

    বি.দ্রু. : দয়া করে উত্তরটি অভ্র বা ইউনিকোডের মাধ্যমে বাংলায় এম.এস.ওয়ার্ড ফাইলে লিখে তা ই-মেইলে
    যুক্ত করে পাঠান ।

  13. অসাধারণ লেখার জন্যে ধন্যবাদ, অনেক অজানা তথ্য জানতে পারলাম। আমার একটি প্রশ্ন ছিল, যেহেতু psu শুধুমাত্র ১২, ৫ এবং ৩.৩ ভোল্ট দেয়, তো আমি কি ঐ output এর অংশ গুলোয় ঐ একই পরিমান ভোল্টেজ ব্যাটারির মাধ্যমে দিয়ে pc চালাতে পারব কি? actually, আমাদের এলাকায় voltage মাঝে মাঝে ১৪০ এ নেমে আসে, তখন voltage stabilizer দিয়েও pcটা on রাখা যায় না। তো, আমি ভাবছিলাম যদি বাহির থেকে dc power input করা যায়, তবে কি unexpected shutdown টা বন্ধ করা যাবে কিনা !?!
    ধন্যবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.