কম্পিউটারের ওয়ারেন্টি নীতিমালায় আসছে পরিবর্তন
আগামী ৩ মাসের মধ্যে কম্পিউটার ওয়ারেন্টি নীতিমালায় ক্রেতা ও ব্যবসায়ীবান্ধব নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস)। ২৬ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বিসিএস ইনোভেশন সেন্টারে ওয়ারেন্টি নীতিমালা প্রমিতকরণ এবং এমআরপি নীতিমালা প্রণয়ন সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। প্রথমবারের মত ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বিসিএস এর ৮টি শাখা কমিটির প্রতিনিধিবৃন্দও এই মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেন।

বিসিএস সভাপতি আলী আশফাকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় সংগঠনের মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার সুব্রত সরকার, পরিচালক মো. শাহীদ-উল-মুনীর ও এস.এম ওয়াহিদুজ্জামান অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভায় আলী আশফাক বলেন, বিসিএস প্রণীত ওয়ারেন্টি নীতিমালা বেশ কয়েক বছর ধরে প্রচলিত রয়েছে, যা প্রযুক্তিগত উৎকর্ষতা ও বাজার ব্যবস্থাপনার সাথে তাল মিলিয়ে সময়ের প্রয়োজনে পরিবর্তন হওয়া বাঞ্ছনীয়। কম্পিউটার ব্যবসায়ী এবং ক্রেতাসাধারণ- এই শ্রেণীর স্বার্থ রক্ষা হয় সে দিকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে। এই নীতিমালা সকল কম্পিউটার ব্যবসায়ীরা মেনে চললে ক্রেতা এবং বিক্রেতা উভয়ের জন্য কল্যাণকর হবে। কম্পিউটার ব্যবসায়ীরা নতুন নীতিমালায় ক্রেতাকে সর্বোচ্চ সেবা প্রদান করতে পারবে। এতে গ্রাহকদের যাতে ভোগান্তি না হয় সে দিকে দৃষ্টি রাখা হবে। এছাড়া ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দেয়া প্রতিষ্ঠানগুলো পণ্য বিক্রয়ের সময়, ওয়ারেন্টি, পণ্য আনা-নেয়ার খরচ ও গ্রাহকদের সন্তুষ্টির কথা বিবেচনায় রাখতে সর্বদা সচেষ্ট থাকবেন।

বিসিএস মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার সুব্রত সরকার বলেন, বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে কম্পিউটার ব্যবসার সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতাগুলো খুঁজে বের করে সেসব সমাধানের প্রচেষ্টা করা হচ্ছে। এতে ক্রেতাদের কম্পিউটার পণ্য ক্রয়ে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ব্যবসায়ীরাও কীভাবে লাভবান হতে পারেন তা নিয়ে চিন্তাভাবনা চলছে। ইতপূর্বে প্রণীত নীতিমালায় ক্রেতা এবং ব্যবসায়ীদের মধ্যে যথেষ্ট দূরত্ব বিদ্যমান রয়েছে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। প্রায়শই গ্রাহক অসন্তুষ্টি নিয়ে আমাদের কথা শুনতে হয়। একইভাবে কম্পিউটার ব্যবসায়ীরাও আমাদেরকে তাদের অভিযোগ জানান। নতুন নীতিমালাতে ওয়ারেন্টি পলিসি আরো বেশি কার্যকর করে ক্রেতা ও সকল কম্পিউটার ব্যবসায়ীদের জন্য একই নীতিমালা প্রণয়নের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

ওয়ারেন্টির জন্য পণ্য পুনরায় পাঠাতে ক্রেতা থেকে ডিলার, ডিলার থেকে ডিস্ট্রিবিউটর, ডিস্ট্রিবিউটর থেকে সার্ভিস সেন্টারে যেতে যে খরচ হয় তা বহন নিয়ে বিসিএস সদস্যরা নিজেদের অভিযোগের কথা মতবিনিময় সভায় তুলে ধরেন। তারা এসময় ওয়ারেন্টির ক্ষেত্রে পেইড সিস্টেম চালুর দাবিও উত্থাপন করেন।

আগামী ৩ মাসের মধ্যে নতুন ওয়ারেন্টি নীতিমালা প্রণয়নের লক্ষে স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জহিরুল ইসলামকে সভায় বিশেষ দায়িত্ব দেয়া হয়। তিনি বলেন, ক্রেতাদেরকে ওয়ারেন্টি প্রদান করা যে কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তবে ক্রেতাদের সন্তুষ্টিপূরণে এ ব্যবস্থা নিয়মিতভাবে প্রচলিত রাখতে প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রচুর ব্যয় করতে হয়। ব্যবসায় নিজেদের ক্ষতি করে কেউ সেবা দিতে চাইবেন না। তাই এমন এক নীতি প্রণীত হওয়া উচিৎ যেখানে ওয়ারেন্টি সেবা প্রদানের জন্য ব্যবসায়ীদের বড় ধরনের কোন ব্যয় হবে না, আবার ক্রেতাসাধারণও তুষ্ট থাকবেন।

তাছাড়া উক্ত মতবিনিময় সভায় কম্পিউটার পণ্যের এমআরপি সংক্রান্ত নীতি নির্ধারণের জন্য গ্লোবাল ব্র্যান্ড প্রাইভেট লিমিটেডের চেয়ারম্যান এ এস এম আব্দুল ফাত্তাহকে বিশেষ দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.