ওয়ার্ডপ্রেসের অন্যতম ও শক্তিশালী একটি ফিচার হচ্ছে প্লাগইন ম্যানেজমেন্ট। নিজের ব্লগকে আকর্ষনীয় করে তুলতে প্লাগইনের জুড়ি নেই। এক একটি প্লাগিনের রয়েছে এক এক রকম সুবিধা। ওয়ার্ডপ্রেসের প্লাগিন ডিরেক্টরীতে রয়েছে শত শত প্লাগইন। আবার কিছু কিছু প্লাগইন আছে ব্যবহার করা খুব সহজ ইন্সটল করলেই হয়ে যায় কিন্তু আবার কিছু প্লাগইন আছে যেগুলো ব্যবহার করতে এডিটিং এর প্রয়োজন হয়।

wordpress-redirect-plugin

এই পোস্টে মন্তব্য সম্পর্কিত কয়েকটি প্লাগিন শেয়ার করার ক্ষুদ্র প্রয়াস চালাব।প্লাগিন গুলো আপনার ব্লগকে পাঠক বান্ধব করে তুলতে সাহায্য করবে। কিছু কিছু ব্লগে দেখা যায় তারা তাদের মন্তব্য প্রদান পদ্বতিকে অনেকটা জটিল করে ফেলে যা পাঠকদের কাছে মোটেও কাম্য নয়। সবসময় উচিত মন্তব্য প্রদান পদ্বতিকে পাঠকদের জন্য সহজ করে রাখা।

wordpress-plugin

Top Commentators Widget WordPress Plugin

ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগারদের জন্য এটি একটি আবশ্যকীয় প্লাগিন। পাঠকদের ধরে রাখতে প্লাগিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাছাড়া মন্তব্যকারীর তার নিজস্ব ওয়েবসাইটের ব্যকলিঙ্ক হিসেবেও সুবিধা পেতে পারে। প্লাগিনটি ব্যবহার করলেই এর গুরুত্ব অনুধাবন করতে পারবেন।

Subscribe To Comments WordPress Plugin

প্লাগিন মূল বৈশিষ্ট্য হল এই প্লাগিনটির সাহায্য মন্তব্যকারী পোস্টের কমেন্ট এর জন্য ইমেইল নোটিফিকেশন সাইন আপ করতে পারবেন। আবার এই প্লাগিনটি প্রয়োজনীয় অপশন সরবরাহ করে থাকে যার সাহায্য মন্তব্যকারী তার নোটিফিকেশন আই-সাবস্ক্রাইব করতে পারবেন, নোটিফিকেশনের জন্য নিজের ইমেইলও পরিবর্তন করতে পারবেন।

CommentLuv WordPress Plugin

ওয়ার্ডপ্রেসের আকর্ষনীয় একটি প্লাগিন। পোস্টে প্রচুর মন্তব্য পেতে এই প্লাগিন সহায়তা করবে। প্লাগিনটি মন্তব্যকারী মন্তব্যের শেষে তার ব্লগের সর্বশেষ পোস্টের লিঙ্ক প্রর্দশন করবে। এটা একদিক থেকে লেখক ও মন্তব্যকারী উভয়ের জন্য লাভজনক।

Ajax Comments WordPress Plugin

প্লাগিনটি ব্যবহারের ফলে মন্তব্যকারী তার মন্তব্য অতি দ্রুততার সাথে প্রদান করতে পারেন। এটাই প্লাগিনটির প্রধান বৈশিষ্ট।

WP Comment Auto Responder WordPress Plugin

বিভিন্ন ব্লগে মন্তব্য করলে দেখা যায় কিছুক্ষন পরেই ইমেইলে ধন্যবাদসূচক একটা নোটিফিকেশন চলে আসে। এই কাজটা করাই মূলত এই প্লাগিনটির উদেশ্য। এই প্লাগিনটি দিয়ে আপনি একটা ধন্যবাদসূচক বার্তা লিখবেন যা মন্তব্যকারী তার মন্তব্যের পর ইমেইলে পেয়ে যাবেন। মন্তব্যকারীকে ধন্যবাদ যানানোর এটা একটা উৎকৃষ্ট উপায়।

Edit Comments XT WordPress Plugin

ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারীদের জন্য এটা আরেকটা দারুন প্লাগিন। মন্তব্যের পর সাধারনত সেটা পুনরায় এডিট করা যায় না। মন্তব্যে কোন ত্রুটি থাকলে এই প্লাগিনটি দিয়ে মন্তব্য পুনরায় এডিট করা সম্ভব।

Thank Me Later WordPress Plugin

প্লাগিনটি অনেকটা অটো রিসপন্ডার প্লাগিনের মত হলেও এই প্লাগিনটির রয়েছে স্বাতন্ত্র বৈশিষ্ট। মন্তব্য প্রদানের পর প্লাগিনটি মন্তব্যকারীকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটা ধন্যবাদ বার্তা পাঠিয়ে দিবে। প্লাগিনটিতে আপনি নির্দিষ্ট করে দিতে পারেন যে ঠিক কত সময় পর মন্তব্যকারীকে ধন্যবাদ বার্তা পাঠানো হবে( ঘন্টা,দিন,সপ্তাহ,মাস ইত্যাদি)। প্লাগিনটির ব্যবহার বেশ ফলপ্রসু কারণ এর ফলে মন্তব্যকারী তার পূর্ববর্তী মন্তব্য সম্পর্কে অবগত থাকে এবং ভবিষ্যতে আলোচনায় অংশগ্রহনের জন্য অনুপ্রানিত হয়।

Recent Comments WordPress Plugin

এটি একটি সাধারণ প্লাগিন কিন্তু বেশ গুরুত্বপূর্ণ। প্লাগিনটি সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহের একটা তালিকা প্রদর্শন করে।

Custom Smilies

মন্তব্য ঘরে স্মাইলি যোগ করে থাকে এই প্লাগিনটি।

Comments with OpenId

অপেন আইডিতে একাউন্ট থাকলে সেই আইডি দিয়ে পোস্টে কমেন্ট করা যাবে।

Live Comment Preview

মন্তব্যের পূর্বে মন্তব্যের প্রিভিউ দেখতে নিতে পারবেন প্লাগিনটির সাহায্য।

Highlight Author Comments

লেখকের মন্তব্যকে হাইলাইট করা প্লাগিনটির কাজ।

WP-Gravatar

অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি প্লাগিন। মন্তব্য ঘরে গ্রাভাটার.কম ছাড়াও আরোও অনেক গ্রাভাটার সমর্থন করে। বিস্তারিত লিখলাম না। উপরের লিঙ্কে গেলেই বুঝতে পারবেন।

comments

6 কমেন্টস

  1. এই প্লাগইনগুলো প্রায় সবগুলোই খুবই কাজের। এর মধ্য থেকে কয়েকটি বিজ্ঞান প্রযুক্তি ডট কম এ ব্যবহৃত হচ্ছে। ভালো পোস্টের জন্য খালিদ ভাইকে ধন্যবাদ।

    • ইমতিয়াজ ভাইইইই……ধন্যবাদ। কি যে ঝামেলায় আছি পিসি নিয়ে। আর ভাল লাগে না। এক্সপি খুব স্লো চলতেছে। কি করি বলেন তো……

      • হা হা হা … 😀 পিসি মাস্টার এর পিসির ১২টা বাইজা রইছে। এভাস্ট এন্টিভাইরাস লাগাইয়া স্ক্যান কর, হার্ডডিস্ক ডিফ্র্যাগ কর, টেম্প ফাইল ডিলিড কর, অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার আনইন্সটল কর, রেজিস্ট্রি ক্লিন কর, ডুপলিকেট ফাইল ডিলিট কর … আরেকটা কাজ করতে পারো, এটাই সবচেয়ে ভালো সমাধান। নতুন করে এক্সপি সেটাপ দাও অথবা উইন্ডোজ সেভেন এ চলে আসো 🙂

      • সবচেয়ে ভাল সমাধান, বস্তাপঁচা উয়িন্ডোজ ছেড়ে লিনাক্সে চলে আসো। উবুন্টু ১০.০৪ অসাধারণ ওএস।

  2. আমারতো মনে হয় আমি কিছু দিনের মধ্যে োয়ার্ড প্রেস এর মাষ্টার হয়ে যাবো।
    ধন্যবাদ ভাই। আরো লিখুন। সাথেই আছি , কোথাো যাব না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.