নাসা এইবার চাইছে পৃথিবীর সাধারন মানুষের আর কাছে আসতে।  সর্ব সাধারণের জন্য উওন্মক্ত করে দিচ্ছে তাদের দুয়ার।বছরের  পর বছর ধরে আমাদের এইবাসযোগ্য গ্রহ আর মহাকাশে কী কী গবেষণা করেছে, করে চলেছে নাসা, তা এ বার আমার আপনার মতো আমজনতাকে তার ঘরে ডেকে দেখাতে ও বোঝাতে চাইছে বিশ্বেমহাকাশ গবেষণার সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠানটি। পাসাডেনায় নাসার জেট প্রোপালসান ল্যাবরেটরি (জেপিএল) তাদের অফিশিয়াল সাইটের মাধ্যমে টা জানিয়েছে । (জেপিএলঅফিশিয়াল ওয়েবসাইট – http://www.jpl.nasa.gov/events/open-house.php   )।

আপনি যদি নাসা এর কর্মকাণ্ড দেখতে চান তাহলে আপনার কেমন খরচ হবে? এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন জেপিএল পাবলিক সার্ভিস অফিসের ম্যানেজার কিম লিভেন্স। তিনি এক বিবৃতি বলেন , সুদূর আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়ার পাসাডেনায় নাসার জেপিএলে গিয়ে নাসার গবেষণার হাল-হকিকৎ চাক্ষুষ করতেও এ বার ডলার, পাউন্ড, ইউরো বাটাকা খরচ হবে না। একেবারে নিখরচায় দু’দিন জেপিএলে থেকে নাসার যাবতীয় কর্মকাণ্ড দেখা ও বুঝে নেওয়া যাবে। আর আমার আপনার মতো যাঁরা মহাকাশ গবেষণা ওজ্যোতির্বিজ্ঞানের কিছুই বোঝেন না, তাঁদের জলের মতো করে সবকিছু বুঝিয়ে দেবেন নাসার বিশিষ্ট জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। একেবারে ব্ল্যাক বোর্ডে, চক পেন্সিল নিয়ে। বা খেলারমাঠে খেলতে খেলতে। এখন থেকে প্রতি বছরেই দিন দু’-তিনেকের জন্য আমজনতার জন্য হাট করে খুলে দেওয়া হবে জেপিএলের দরজা।

oh5তার জন্য জুন মাসের ৪ আর ৫ তারিখে পাসাডেনায় জেপিএলে একটি বড় ওয়ার্কশপের আয়োজন করতে চলেছে নাসা। যার নাম দেওয়া হয়েছে ‘ওপেন হাউস’।

যাতে পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তের মানুষই পারবেন অংশ নিতে। তা তিনি মার্কিন নাগরিক হোন বা আফ্রিকার ইথিওপিয়া কিংবা অ্যাঙ্গোলার। তবে সেই অনুষ্ঠানে অংশ নিতেগেলে কোনও অর্থ লাগবে না ঠিকই, কিন্তু আগে থেকে একটি ‘বিনা পয়সার টিকিট’ আমাকে আপনাকে ‘বুক’ করতে হবে। যে টিকিটের নাম দেওয়া হয়েছে, ‘আ টিকিট টুএক্সপ্লোর জেপিএল’। বলতে পারেন, ওই টিকিটই নাসার ‘ওপেন হাউস’-এ অংশ নেওয়ার ‘পাসপোর্ট’ আর ‘ভিসা’! যার জন্য কোনও অর্থের প্রয়োজন হবে না ঠিকই, কিন্তুযেহেতু সেই টিকিটের সংখ্যা সীমিত, তাই তা বিলি-বণ্টন করা হবে ‘আগে আসলে আগে পাবে’ এই ভিত্তিতে। এক জন সর্বাধিক পাঁচটি করে কাটতে পারবেন টিকিট। বিশ্বের যেকোনও প্রান্ত থেকেই নাসার ওই ‘ওপেন হাউস’-এ অংশ নেওয়ার জন্য জরুরি টিকিট ‘বুক’ করা যাবে অনলাইনে।। জেপিএলের‘স্পেশ্যাল ইভেন্টস’ ওয়েব পেজে। বা, (৮১৮) ৩৫৪-১২৩৪ নম্বরে টেলিফোন বা (৮১৮) ৩৯৩-৪৬৪১ নম্বরে ফ্যাক্স পাঠিয়েও ‘বুক’ করা যাবে নাসার সেই অনুষ্ঠানেরটিকিট। জেপিএলের ‘স্পেশ্যাল ইভেন্টস’ ওয়েব পেজে থাকবে ‘রিজার্ভ টিকিটস’ বাটন। তাতে ক্লিক করলেই ভেসে উঠবে দু’টো অপশন। ‘চুজ ওয়ান ডেট অর এন্ট্রি টাইম’ ( যেকোনও একটি তারিখ বা প্রবেশের সময় বেছে নাও)। দ্বিতীয় অপশনে বলা হবে- ‘সিলেক্ট নাম্বার অফ টিকিট্‌স’ (কতগুলি টিকিট লাগবে, জানাও- সর্বাধিক পাঁচটি)। এর পরপ্রতিটি টিকিটের জন্য আলাদা আলাদা নাম ও তাঁদের ই-মেল অ্যাড্রেস জানাতে হবে। সেই ‘রিজার্ভেশান’কে কনফার্ম করাতে রাতে হবে। কনফার্মড হলেই জেপিএল থেকেআসবে একটি ই-মেল। সেই ই-মেলেই জেপিএলের ‘ওপেন হাউস’ অনুষ্ঠানের যাবতীয় নির্ঘণ্ট জানানো থাকবে। এ বার সেই টিকিটের প্রিন্ট-আউট হাতে নিয়েই ছুটুনবিমানবন্দরে, ক্যালিফোর্নিয়ার ফ্লাইট ধরতে।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.