রাজধানীতে মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে দক্ষিণ এশীয় টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থার (এসএটিআরসি) ১৭তম আন্তর্জাতিক সম্মেলন।

রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

সোমবার রাজধানীর আইইবি ভবনের বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থার (বিটিআরসি) সম্মেলনকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সংস্থার চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ।

সম্মেলনে দক্ষিণ এশিয়ার নয়টি দেশের টেলিযোগাযোগ ও তথ্যযোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রধান, টেলিকম অপারেটর, উদ্যোক্তা, সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তা টেলিকম ও তথ্য প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের প্রায় ১০০ জন প্রতিনিধি অংশ নেবেন। দেশগুলো হলো, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভুটান, আফগানিস্তান, মালদ্বীপ ও ইরান।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের তত্ত্বাবধানে বিটিআরসি ও এশিয়া-প্যাসিফিক টেলিকমিউনিটি (এপিটি) এ সম্মেলনের আয়োজন করছে।

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন এসএটিআরসির চেয়ারম্যান ও ভারতের টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটির চেয়ারম্যান আর এস শর্মা। এ ছাড়া থাকবেন এপিটির মহাসচিব মিস অ্যারিওয়ান হাওরাংসি, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরী ও বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ।

তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠেয় এ সম্মেলনে মোট ১১টি সেশন ও একটি গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বিভিন্ন সেশনে ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক প্রবেশ, গুণগত মান, ডিজিটাল অন্তর্ভুক্তি, তরঙ্গ নিয়ন্ত্রণ, ইন্টারনেট অব থিঙ্কস, পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল সেবাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে রেগুলেটরি ফ্রেমওয়ার্ক ও কর্মকৌশল নিয়ে আলোচনা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন, বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ, সহসভাপতি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আহসান হাবিব খান (অবসরপ্রাপ্ত), সচিব মো. সরোয়ার আলম, মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. এমদাদ উল বারী প্রমুখ।

ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (আইটিইউ) ও এপিটির উদ্যোগে ১৯৯৭ সালে দক্ষিণ এশিয়ার টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থাগুলোর সমন্বয়ে এসএটিআরসির নামে এ ফোরাম অনুষ্ঠিত হয়।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.