ভার্চুয়াল সেন্স

হয়তো ভার্চুয়াল রিয়েলিটি বা ভিআর হেডসেটের বদৌলতে এই দুনিয়ার কিছুটা আমেজ নিয়েছেন।কিন্তু কখনো ভার্চুয়াল রিয়েলিটির দুনিয়ায় ডুব দেওয়ার ইচ্ছা হয়নি? আপনাকে এবার সেই সুযোগ করে দিচ্ছে কোয়ি টেকমো।

এই প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা ভার্চুয়াল রিয়েলিটির গোটা একটা কেবিনেট বানিয়েছে।এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘ভার্চুয়াল সেন্স’। এটা দেখতে বেশ শক্তপোক্ত।ঝকঝকে সিলভার রংয়ের দেহ।আকারে বেশ বড়।

কোটাকু এক প্রতিবেদনে জানায়, এই ভিআর সেন্স কাজ করে প্লেস্টশন ভিআর এর সঙ্গে। ব্যবহারকারীরা পিএসভিআর হেডসেট পরে থাকেন এবং পিএস মুভ কন্ট্রোলার নিয়ন্ত্রণ করেন। এটা একটা কেবিনেটসহ আসবে কিনা তা নিশ্চিত করেনি নির্মাতা। না আসলে এটা আলাদাভাবে কিনতে হবে।

আপনার চোখ ও কানের সঙ্গে ভিআর সেন্স যোগ করবে আপনার নাক ও ত্বককে।কেবিনেটে উইন্ড, মিস্ট বা টেম্পারেচার এবং সেন্ট অপশন রয়েছে। এই অপশনের ব্যবহার ঘটিয়ে আপনি দারুণ এক পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারেন কেবিনেটে। সেন্ট অপশন ব্যবহার করলে মিষ্টি গন্ধ ছড়িয়ে পড়বে। এসব সুইচের ব্যবহারে বনাঞ্চল থেকে শুরু করে বরফ আচ্ছাদিত পাহাড়ের পরিবেশও উপভোগ  করতে পারবেন।

এই কেবিনেটের ভেতরে বসেই আপনি ভার্চুয়াল রিয়েলিটির জগতে হারিয়ে যেতে পারবেন।এতে বসার জন্য চেয়ারও রয়েছে।এই চেয়ারকে যেকোনো দিকে ঘুরিয়ে নিতে পারবেন।এতে আছে একটি সিটবেল্ট।এতে বোঝা যায়, কাঁপাকাঁপির পরিবেশ সৃষ্টি হলে এটি কাজে লাগবে।

ভিআর সেন্সে বসে কেবল যে বাতাস বা বৃষ্টি অনুভব করবেন তাই নয়, চাইলে পোকা-মাকড় এবং ইঁদুরের আনাগোনাও অনুভব করতে পারবেন।

ভিআর সেন্সের জন্য তিনটি গেমের ঘোষণাও দেওয়া হয়েছে।এগুলো হলো- ডায়নেস্টি ওয়ারিওর্স, জিআই জকি সেন্স এবং হরর সেন্স।খেলোয়াড় এতে বসলে মনে হবে যেন ঘোড়ায় নিজেই চড়ে বসেছেন।

এই কেবিনেটকে জাপানিজ অ্যামুজমেন্ট এক্সপো-তে প্রদর্শন করা হতে পারে বলে ধারণা করছেন সবাই।এটি টকিওর এক মেলা যাতে আর্কেড পণ্যগুলো প্রদর্শিত হয়। তবে কোয়ি টেকমো এমন এক যন্ত্র যা আর্কেডের বাইরেও অনেক কাজ করবে।

কোয়ি টেকমো কিভাবে অনুভূতি প্রদান করে তার সম্পর্কে কোনো ধারণা দেওয়া হয়নি।হয়তো তা কখনো বেরও করা যাবে না।

 

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.