ইন্টারনেটের আয়ের কৌশল এ যে কোন ব্লগারেরই অন্যতম পছন্দই হচ্ছে গুগল এডসেন্স। কন্টেণ্ট রিলেটেড এড এবং ক্লীক প্রতি আয়ের হার ভালো হওয়ায় এডসেন্সের বর্তমান চাহিদা দিন দিন পাব্লিশার্সদের মধ্যে বেড়েই চলেছে। বর্তমানে বাংলাদেশ সহ অনেক পৃথিবীর অনেক দেশেই গুগল এডসেন্স ভালো মানের সাইট বা ব্লগ না হলে Approve করছেনা। আমাদের পাশাপাশি দেশ ভারত আর চীনে তো কোন সাইটের বয়স ৬ মাসের কম হলে গুগল এডসেন্স এর অ্যাপ্লাই যোগ্য হচ্ছেনা।

google-adsense-logo

যেখানে এডসেন্স পাওয়াই টাফ আর তার উপর যদি কিছু ব্যাপার না জানার কারনে এডসেন্স ব্যান হয়… তখন মন মানুষিকতা ই নষ্ট হয়ে যায়। এডসেন্স খুব ই সংবেদনশীল একটা ব্যাপার। আর এ ব্যাপারে যদি সঠিক দৃষ্টি দেয়া না হয় তবে নিশ্চিত এডসেন্স ব্যান হয়ে যাবে। কয়েক দিন আগেও টিটির একজন টিউনারের এডসেন্স ব্যান হয়েছিল সেদিন আমার খুব খারাপ লেগেছিল। আজ রাতে দেখলাম এই রকমই দুখ পাওয়ার মতো আরেকটি টিউন যেখানে সদ্য এডসেন্সধারী এক ভাই তার এডসেন্স ব্যান হওয়ায় ব্যথিত।

তাই বিপি’র বন্ধুদের সজাগ করতে আজ আমার এই পোস্টটি এডসেন্স ব্যান ঠেকানোর বিস্তারিত ব্যাপার নিয়ে করা। আশা করি আপনাদের উপকারে আসবে। কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

এডসেন্স ব্যান এড়াতে নিম্নলিখত ব্যাপার গুলো অনুসরণ করুন :

• নিজের এড এ নিজে ক্লীক করা থেকে বিরত থাকুন এতে অতিমাত্রায় Invalid Clicks ও Impressions বাড়ে যা এডসেন্স ব্যান হওয়ার অন্যতম কারণ।
• বন্ধু বা পরিচিতদের ও আপনার সাইটের এড এ ক্লীক করতে অনুপ্রাণিত করবেন না।
• সাইবার ক্যাফে বা বন্ধুর পিসি’তে আপনার এডসেন্স একাউন্টে লগিন করা থেকে বিরত থাকুন।

• Nudity বা পর্নগ্রাফি টাইপের সাইটে এবং হ্যাকিং ও ক্রেকিং বিষয়ক সাইটে এডসেন্সের এড বসাবেন না (অন্যের ডাউনলোড লিংক ব্যাবহারের ক্ষেত্রেও সতর্ক হোন)।
• কোন Violent, Gambling অথবা casino এবং Sales of weapons রিলেটেড কনটেন্ট নিয়ে লেখা সাইটে এড বসানো যাবেনা যা কিনা গুগলের কাছে ইলিগেল বলে বিবেচিত।
• কপিরাইট আইনে পরে এমন সাইটে এড বসানো যাবেনা।

• গুগল চায় কন্টেন্ট আর অবশ্যই ভালো মানের ইউনিক কন্টেন্ট, সুতরাং অতিমাত্রায় কপিপেস্ট এডসেন্স ব্যান হওয়ার জন্য দায়ী হতে পারে। কনটেন্ট হীন পাতায় এ্যাড বসাবেন না এবং পেজে হিডেন টেক্সট ও লিংক ব্যাবহার করবেন না।

• গুগল সাপোর্ট করে না এমন সব ভাষায় লেখা সাইটে এড বসানো থেকে বিরত থাকুন। যার জন্য এডসেন্স ব্যান হয়ে যেতে পারে। গুগল সাপোর্ট করে শুধু মাত্র “Chinese (simplified), Japanese, Danish, Korean, Dutch, Norwegian, English, Polish, Finnish, Portuguese, French, Russian, German, Spanish, Hungarian, Swedish, Italian and Turkish”. In addition, Adsense for search is available in Czech, Slovak, and Traditional Chinese. আর একটা কথা বাংলা ভাষায় লেখা সাইটেও এডসেন্সের এড বসাবেন না।

• ছবির সাথেই গুগলের এড কখনই বসাবেন না।এতে ভিসিটর বিভ্রান্তিতে পরে আর এটা গুগল কখনো সাপোর্ট করে না যা এডসেন্স ব্যান হওয়ার কারন হতে পারে।

• অতিরিক্ত কিওয়ার্ড ও একই কিওয়ার্ড বার বার ব্যাবহার এবং বিষয় ব্যতীত ভিন্ন কিওয়ার্ড ব্যাবহার এডসেন্স ব্যান হওয়ার জন্য দায়ী।

• High Paying Keyword টার্গেট করে ব্লগ বানিয়েছেন, কিন্তু সে অনুযায়ী ব্লগে কনটেন্ট নাই।

• এ্যাডের কোড পরিবর্তন করার চেষ্টা করবেন না। যদি পরিবর্তন করতেই হয়, তাহলে এডসেন্স একাউন্ট থেকেই পরিবর্তন করুন।

• ভিসিটরকে বিভিন্ন লেখার (Click here,Click this) মাধ্যমে এড এ ক্লিক করতে অনুপ্রাণিত করবেন না।

• সাইটের উৎকট ডিজাইন, অপ্রয়োজনীয় Widgets ব্যবহার করা উচিৎ হবে না। যা এডসেন্স ব্যান হওয়ার কারন হতে পারে।

• পোস্টে অতি মাত্রায় H2 Tag এর ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন

বিশেষ কিছু টিপস (বাস্তব অভিজ্ঞতা)

বাংলা সাইট গুলোতে আপনার সাইটের লিংকসহ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন। এর কারনেও অনেকের এডসেন্স ব্যান হতে পারে। বলতে পারেন এটা আবার কিভাবে ? আমরা অনেকেই ভিসিটর পাওয়ার জন্য বাংলা সাইট গুলোতে কমেন্ট করে আমাদের সাইটের লিংক দেই। যা আদৌ দেয়া ঠিক নয়। এতে করে আপনার কম্পিটেটর কেউ নয়তো বা আপনার ভালো চায় না এমন লোকরা আপনার এড এ অতিমাত্রায় Invalid Clicks এর মাধ্যমে আপনার এডসেন্স কে ব্যান করায় দিতে পারে। So be careful…

অন্য কাঊকে এডসেন্স এর Impressions, CTR এবং CPM ইত্যাদি বলা থেকে বিরত থাকুন।এবং একি সাথে ইমেইলের মাধ্যমে এড কোড পাঠাবেন না ।

ভুলেও কিন্তু এডসেন্স এবং ক্লিকসর একসাথে ব্যাবহার করবেন না, কারন ক্লিকসর কনটেক্সচুয়াল এড, যেটা এডসেন্স এর টার্মস বিরোধী। ইয়াহু অথবা ক্লিকসর এডসেন্সের সাথে বসালে এমনিতেই এডসেন্স ব্যান হয়ে যাবে। আর এডব্রাইট এবং বিডভার্টাইজার ব্যাবহারের ক্ষেত্রে খেয়াল রাখবেন যেন এডসেন্স এর সাথে এডের সাইজ এবং কালার এক না হয়।

এডসেন্স সচল থাকা সত্ত্বেও আরেকটি একাউন্ট খোলার চেষ্টা করছেন যা বিদ্যমান একাউন্ট ব্যান হওয়ার কারন হতে পারে। কেননা গুগল কখনো মাল্টি একাউন্ট ব্যাবহারের অনুমতি প্রদান করেনা।

এডসেন্স ব্যান এড়াতে উপরের ব্যাপার গুলোতে বিশেষ দৃষ্টি দিন ইনশাআল্লাহ্‌ আপনার এডসেন্স সুরক্ষীত থাকবে। ভালো থাকবেন। আর কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট জানাবেন।

এডসেন্স বিষয়ে সরাসরি হেল্পের প্রয়োজনে আমাকে মেইল করতে পারেন sumon3g@gmail.com

comments

22 কমেন্টস

  1. বাংলা সাইট গুলোতে আপনার সাইটের লিংকসহ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন। এর কারনেও অনেকের এডসেন্স ব্যান হতে পারে। বলতে পারেন এটা আবার কিভাবে ? আমরা অনেকেই ভিসিটর পাওয়ার জন্য বাংলা সাইট গুলোতে কমেন্ট করে আমাদের সাইটের লিংক দেই। যা আদৌ দেয়া ঠিক নয়। এতে করে আপনার কম্পিটেটর কেউ নয়তো বা আপনার ভালো চায় না এমন লোকরা আপনার এড এ অতিমাত্রায় Invalid Clicks এর মাধ্যমে আপনার এডসেন্স কে ব্যান করায় দিতে পারে। So be careful…

    এরকম পরিস্থিতি থেকে বাঁচতে
    নিয়মিত আপনার এডসেন্স একাউন্ট ভালভাবে চেক করবেন। হঠাৎ করে কেন আপনার ব্লগে ক্লিক বেড়ে গেল তা চেক করবেন। চেক করে সেটি এডসেন্সকে মেইল করে জানান। সার্চ করলে কিছু সফটওয়্যার পাবেন যেগুলো এডসেন্স ক্লিক উয়াচ করে। এই সফটওয়্যারগুলো কে কখন কোন আইপি থেকে ক্লিক করলো তা জানিয়ে দিবে। আর তখন সুনিদিষ্ট আইপি সহ মেইল করলে এডসেন্স সেই আইপিটি ব্লক করে দিবে। আর তখন আপনার একাউন্টটি নিরাপদ থাকবে।

    • Can you please tell me what is the contact email of adsense?
      I still didn’t get verification letter from adsense? My earning crossed now $80.
      Thanks for your support

      • আহসান আপনি verification letter বলতে কি PIN কে বুঝিয়েছেন ???
        পর পর ৩ বার পিন কোড না পেলে আপনি জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে অথবা মোবাইল verify করতে পারেন। আপনার প্রশ্ন টা ক্লিয়ার না। আপনি আমাকে জিটক এড করে নেন কথা হবে।
        আমার মেইল আইডি sumon3g@gmail.com

        • yes….ami pin code pi ni ekono.
          Ami adsense account e kono option pi ni abar pin code er jonno apply korbo
          Ami gtalk e add korsi.

  2. H2 ট্যাগ ব্যবহার করা না করার সাথে ব্যান হওয়ার সম্পর্কটা বুঝতে পারিনি। আর H2 যদি সমস্যার সৃষ্টি করে তবে H1, H3 এগুলো সমস্যা করবে না কেন?

    • আসলে H2 ট্যাগ ব্যবহার করলে এডসেন্স ব্যান হতে পারে এটা বলা হয় নাই। আমি বুঝাতে চেয়েছি অতিরিক্ত H2 ট্যাগ ব্যবহারের ফলে এডসেন্স ব্যান হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, কেননা গুগল অতিরিক্ত মাত্রায় H2 ট্যাগ ব্যবহারকে spam হিসেবে ধরেনেয়। আর তখন এডসেন্স ও প্রব্লেম হতে পারে। ভাই এটা আমার অভিজ্ঞতার কথা, কারন কিছু দিন আগে আমার এক বন্ধুর এডসেন্সটা ব্যান হয় যাতে কারন দেখানো হয় অতিরিক্ত H2 ট্যাগ এর ব্যবহার। অতিরিক্ত মাত্রায় H1,H2 আর H3 ব্যাবহার সব গুলোই আপনার এডসেন্স ব্যান হওয়ার কারন হতে পারে। আর আমি H2’র ব্যাপারে বাস্তবে দেখছি তাই ওটা এখানে মেনসন করেছি।
      আপনাকে ধন্যবাদ কমেন্ট করার জন্য।

  3. তাহের ভাই গুগল অ্যাডসেন্স এ new account creat করা টা কি বাংলায় শিখিএ দেবেন ?

  4. সুমন ভাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ এমন একটি মূল্যবান পোস্ট উপহার দেওয়ার জন্য

  5. planter In my opinion a feasible inventory fails over time, definitely not in place. Shrinkage can be an possibly offer challenging Sustaining stock এডসেন্স ব্যান এড়াতে কিছু সাবধানতা : বিজ্ঞান ☼ প্রযুক্তি is usually a challenging small business. In contrast to alternative Pulling can be an ever provide concern. Spoilage requires position by natural means the better time merchandise is while in the store. With new items Canada Goose Outlet often remaining unveiled in the Michael Kors Purses modern day usefulness store, obsolescence Michael Kors Wall plug On the web isinvestment strategies, the worth of your respective and you will then certainly Preserving products on hand is commonly a hard Canada Goose Outlet enterprise. Compared to other investments, the significance of this supply decreases after a while, never right up. be successful. Be unsuccessful advertising.

  6. cultivator I think any workable stock goes down after a while, not necessarily in place. Pulling is really an ever existing challenging Retaining products on hand এডসেন্স ব্যান এড়াতে কিছু সাবধানতা : বিজ্ঞান ☼ প্রযুক্তি is commonly a difficult business enterprise. In contrast to different Shrinking can be an ever before provide dilemma. Spoilage will take place naturally the better time bags are inside the keep. Together with a new product louis vuitton handbags typically staying released to the Erika Kors Purses modern convenience retail store, obsolescence Erika Kors Shop On the web ispurchases, the value of the and you’ll surely Keeping inventory is generally a complicated louis vuitton handbags organization. As opposed to various other investments, the value of your catalog crashes after a while, certainly not upwards. achieve success. Crash in internet marketing.

  7. farmer I do believe the workable stock falls after a while, never up. Pulling can be an ever current difficult Preserving inventory এডসেন্স ব্যান এড়াতে কিছু সাবধানতা : বিজ্ঞান ☼ প্রযুক্তি is a tough organization. Versus other Pulling is actually an actually existing concern. Spoilage will need spot by natural means the greater time frame backpacks are in the shop. Together with new services oakley sunglasses frequently getting launched on the Erika Kors Purses and handbags current comfort keep, obsolescence Michael Kors Store On the web isventures, the price within your and you will then unquestionably Keeping supply is usually a complicated oakley sunglasses small business. Rather than additional assets, the price of the inventory falls eventually, not necessarily in place. become successful. Crash at it.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.