এটিএম কার্ডের পিন নম্বর আজকের দিনে কমবেশি সবার কাছেই অত্যন্ত জরুরি।এই চার সংখ্যার নম্বরই আপনার কষ্টার্জিত অর্থকে সুরক্ষিত রাখে। আবার, এই চারটে সংখ্যার জোরেই যখন খুশি প্রয়োজনে এটিএম থেকে টাকা তুলে নিতে পারেন আপনি। অনলাইনে অর্থ লেনদেনের প্রয়োজনেও এই পিন নম্বরই আপনার একমাত্র ভরসা।

কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন এটিএম কার্ডের এই পিন নম্বরটি চারটি সংখ্যার হয় কেন? কারণটার পিছনে ছিলেন একজন মহিলা। না, তিনি এটিএম মেশিন, বা এটিএম কার্ড অথবা পিন নম্বর ব্যবহার করে টাকা তোলার এই পদ্ধতি আবিষ্কার বা উদ্বোধন করেননি। করেছিলেন তাঁর স্বামী।
আসলে ভারতের শিলংয়ে জন্মানো স্কটিশ আবিষ্কারক জন অ্যাড্রিয়ান শেফার্ড ব্যারন আজকের এটিএম মেশিন তৈরির ক্ষেত্রে অন্যতম পথপ্রদর্শক ছিলেন।অবাক করার মতো বিষয় হল, তিনি নিজে ছয় সংখ্যার পিন নম্বর তৈরির প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

কিন্তু তাঁর স্ত্রী ক্যারোলিনের আপত্তিতেই শেষ পর্যন্ত পিন নম্বর চার সংখ্যার করার সিদ্ধান্ত নেন জন শেফার্ড ব্যারোন।কারণ, ক্যারোলিনের স্মৃতিশক্তি খুব একটা ভাল ছিল না।ফলে, ৬ সংখ্যার পিন নম্বর মনে রাখা তাঁর পক্ষে সম্ভব হত না।স্ত্রীর আপত্তিতেই শেষ পর্যন্ত চার সংখ্যার পিন নম্বরের সিদ্ধান্ত নেন তিনি।
একদিক দিয়ে দেখলে হয়তো জন শেফার্ড ব্যারোনের স্ত্রী ক্যারোলিনকে আমাদেরও ধন্যবাদ দেওয়া উচিত।প্রতারণার আশঙ্কায় এমনিতেই মাঝেমধ্যে পিন নম্বর বদলানো উচিত।চার সংখ্যার পিন নম্বরই মাঝেমধ্যে গুলিয়ে যায় অনেকের, সেখানে ছয় সংখ্যার পিন নম্বর হলে মুশকিল আরও বেড়ে যেত।

যদিও এখন অবশ্য গ্রাহকের নিরাপত্তার স্বার্থে বেশ কিছু ব্যাংক গ্রাহকদের ছয় সংখ্যার পিন নম্বর দেয়।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.