ভাল ওয়েব  ডিজাইন অকর্ষণীয় ওয়েবপেজ তৈরি করার চেয়ে আরও বেশি কিছু। সাধারণভাবে বলা যায় কালার থিওরি, টাইপোগ্রাফ্রি, লে-আউট এবং ব্যবহারযোগ্যতা ভাল ওয়েব  ডিজাইনের প্রধান উপকরণ।একটি ওয়েব সাইটে এই জিনিসগুলো একসাথে কাজ করলে সাইটটি ব্যবহারকারীদের নিকট ব্যবহার বান্ধব হয়ে ওঠে।আপনি একটা ওয়েব সাইটে আকর্ষণীয় কালার এবং গ্রেডিয়েন্ট ব্যবহার করলেন কিন্তু পাঠেরযোগ্য তথা পরিচিত ফন্ট ব্যবহার করলেন না তহলে আপনার ডিজাইনটি দেখতে সুন্দর হলেও ভাল ডিজাইন বলা যাবে না।

একজন ভাল ওয়েব ডিজাইনারের দক্ষতাtem

একটি ভাল লে-আউট ডিজাইন করার জন্য শুধুমাত্র ফটোশফে দক্ষতা থাকলেই হবে না পাশাপাশি HTML,CSS,Javascrpt ইত্যাদি বিষয়েও ভাল ধারণা থাকতে হবে।ফটোশফে দক্ষতা থাকলে আপনি আকর্ষনীয় ডিজাইন তৈরি করতে পারেন কিন্তু যদি ব্রাউজার HTML এবং CSS সম্পর্কে ধারণা না থাকে তাহলে  তৈরিকৃত ডিজাইনটি ব্রাউজারে কিভাবে প্রদর্শন করবে, বিভিন্ন সাইজের মনিটরে ডিজাইনটি ভালভাবে দেখা যাবে কিনা, ডিজাইনটির কতটা ভারি হবে, তা ব্রাউজারে দ্রুত লোড করা সম্ভব হবে কিনা, ব্যবহৃত গ্রেডিয়েন্ট Coding এর মাধ্যমে তৈরি করা যাবে কিনা ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি নজর এরিয়ে যাবে, অন্যদিকে লে-আউটে ব্যবৃত আইকন লোগো ব্যনার, বাটন ইত্যাদি কোন ফরমেটে সেভ করলে ভাল সুবিধা পাওয়া যাবে তাও অনুধাবন করা সম্ভব হবে না। আবার যদি লে-আউটটি ভালভাবে অপটিমাইজ না করা হয়, তাহলে সার্চ ইন্জিন সাইটটি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে পারে। সর্বপরি ডিজাইনটি যদি ব্যবহার বন্ধব না হয়  তাহলে ব্যবহারকারীরাও মুখ ফিরিয়ে নেবে।

g4একজন ভাল ওয়েব ডিজাইনারের সৃজনশীলতা

ভাল ওয়েব ডিজাইনের জন্য একটি মূখ্য বিষয় হচ্ছে সৃজনশীলতা। আপনার  সৃজনশীলতা আপনাকে অন্যদের থেকে আলাদা করে থাকে। আপনি যদি আপনার ডিজাইনে  নিজের সৃজনশীলতার সফল প্রতিফলন  ঘটাতে চান তাহলে গ্রাফিক্সকে CSS এবং Javascrpt ব্যবহারের মাধ্যমে যতটা সম্ভব Codng এ রূপান্তর করতে হবে। ওয়েব সাইটকে আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য এবং সংক্ষিপ্ত স্পেসের মধ্যে অনেক বেশি তথ্য উপস্থাপন করতে এনিমেশনের গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু এক্ষেত্রে Flash এ তৈরি এনিমেশন ব্যবহার করলে অনেক ক্ষেত্রেই ওয়েব পেজ ভারি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। jQuery ব্যবহার করে আপনার সৃজনশীলতাকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারেন।

g6 একজন ভাল ওয়েব ডিজাইনারের পরিচ্ছন্নতা

পরিচ্ছন্নতা একজন ভাল ওয়েভ ডিজাইনারের একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য। একজন গুণী শিল্পীর একটি তুলির আচরও একটি শিল্পকর্ম হতে পারে। ওয়েব ডিজাইনের ক্ষেত্রেও গাড় রঙের এবং অসংখ্য গ্রাফিক্স ব্যবার করার চেয়ে হলকা  রঙের আকর্ষণীয় পরিমিত গ্রাফিক্স ব্যবহার করাই শ্রেয়। তাহলে ইউজারদের কাছে ইন্টারফেসটি যেমন ব্যবহার বান্ধব হবে পাশাপাশি দেখতেও আকর্ষণীয়ও হবে। CSS, Javascrpt, jQuery সঠিক মাত্রায় ব্যবহার করে খুব সজেই ব্রাউজারে দ্রুত লোড উপযোগী পরিচ্ছন্ন ইন্টারফেস ডিজাইন করা সম্ভব।এছাড়া ব্যকগ্রাউন্ড, বর্ডার, নেভিগেশন ইত্যাদিতে ইমেজ রিপিটেশন এর সঠিক প্রয়োগ নিশ্চিত করার মাধ্যমে ওয়েব পেজের ওয়েট কমিয়ে ভাল গ্রাফিক্স তৈরি করা যায়।

comments

7 কমেন্টস

  1. অনেক তথ্য সমৃদ্ধ পোষ্ট লিখেছেন ভাই। অনেকেই এই বিষয়গুলো মানে না যার কারনে সাইট হয় অনেক ভারি। আপনার এই পোষ্টটি তাদের পড়া দরকার বলে আমি মনে করি। 🙂

  2. ওহ ভাইয়া জোষ হইছে।আপনাকে ওস্তাদ ওস্তাদ মনে হইতাছে:lol:

  3. 読によって始められた。続いて鈴木が、東郷の起草した案文を読み上げた。「客月二六日付三国共同宣言に挙げられたる条件中には、日本天皇の国法上の地位を変更する要求を包含し居らざることの了解の下に日本政府は之を受諾す」鈴木は四条

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.