ওপেন সোর্সড অপারেটিং সিস্টেমের জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আর জনপ্রিয়তার এই ধারা বজায় রাখতে সম্প্রতি মুক্তি পেল উবুন্টুর সর্বশেষ সংস্করণ Natty Narwhal অর্থাৎ উবুন্টু ১১.০৪। উবুন্টুর সর্বশেষ সংস্করণগুলোতে বলতে গেলে বেশ বড় কিছু পরিবর্তনই লক্ষ্য করা গেছে। তবে এসব পরিবর্তন নিয়ে আলোচনার শীর্ষে রয়েছে “Unity” যা উবুন্টুর প্রথাগত ডেস্কটপ থেকে সম্পূর্ন  ভিন্ন। এই Unity নিয়ে অনেকের মাঝেই অনেক রকম কথা শোনা যাচ্ছে, অনেকে একে পুরো সমর্থন করছেন আবার অনেকে একেবারেই Unity এর বিপক্ষে। কেউবা প্রথমে এর বিপক্ষে থাকলেও Unity এর উন্নতির ফলে এখন সমর্থন দিচ্ছেন। তবে যার কাছে Unity যেমনই লাগুক না কেন আজকের পোস্টটা মূলত তাদের জন্যই যারা Unity ছেড়ে আগের মতই উবুন্টুর ক্লাসিক ডেস্কটপে ফিরে যেতে চান।

Unity
Unity

আপনি Unity সমর্থন করুন আর না-ই করুন, হয়তো কোন কাজে আপনাকে ক্লাসিক ডেস্কটপে ফিরে আসতে হতে পারে, সেক্ষেত্রে এই ছোট টিউটোরিয়ালটি আপনাকে সাহায্য করতে পারে। আপনি চাইলেই যেকোন সময় Unity থেকে Classic Desktop এ সুইচ করতে পারেন কিংবা Classic Desktop থেকে Unity তেও ফিরে আসতে পারেন। Unity থেকে Classic Desktop এর সুইচ করতে প্রথমে Unity তে যেয়ে Login লিখে সার্চ করুন। এরপর Login Screen এপ্লিকেশনটি চালু করুন।  নিচের ছবির মত Login Screen Settings চালু হলে Unlock এ ক্লিক করুন। আপনার যদি পাসওয়ার্ড দেয়া থাকে তাহলে ইউজার পাসওয়ার্ড দিয়ে চালু করুন।

Login Screen Settings
Login Screen Settings

Unlock করার পর আপনি এর সবগুলো অপশন নিয়ে কাজ করতে পারবেন। সেখান থেকে “Select Ubuntu as default session” থেকে Ubuntu এর পরিবর্তে Ubuntu Classic বাছাই করুন এবং Login Screen Settings ক্লোস করে বেরিয়ে আসুন। তাছাড়া আপনার পিসি যদি আপনি একাই ব্যবহার করেন এবং লগিন করার সময় বারবার পাসওয়ার্ড দিয়ে ঢোকার ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে চান তাহলে Login Screen Settings থেকেই Log in as “আপনার নাম” automatically দিয়ে দিতে পারেন।

Login Screen Settings_006

আপনার কাজ শেষ। এবার পিসি রিস্টার্ট দিলেই Unity এর পরিবর্তে নিচের ছবির মত উবুন্টু আগের Classic Desktop এ চালু হবে। 😀

Ubuntu Classic
Ubuntu Classic

এবার আপনি পুনরায় Classic Desktop থেকে Unity তে ফিরে যেতে চাইলে System > Administration এ যেয়ে Login Screen চালু করে Login Screen Settings থেকে “Select Ubuntu Classic as default session” এ Ubuntu Classic এর পরিবর্তে শুধু Ubuntu বাছাই করে দিন। এবার Close করে আপনার পিসি রিস্টার্ট দিলেই পুনরায় Unity চালু হয়ে যাবে। তবে এই পদ্ধতিটি সম্ভবত উবুন্টুর সর্বশেষ সংস্করন উবুন্টু ১১.০৪ পর্যন্তই অনুসরন করা যাবে কারন এরই মধ্যে উবুন্টু ক্লাসিক ডেস্কটপকে একেবারেই বিদায় জানিয়ে দেবার চিন্তাভাবনা চলছে অর্থাৎ উবুন্টু ১১.০৪ এর পরবর্তি সংস্করনগুলোতে ক্লাসিক ডেস্কটপ না দেবার ব্যাপারে আলোচনা চলছে। সেক্ষেত্রে হয়তো আলাদা এপ্লিকেশন ডাউনলোড বা ইন্সটলের মাধ্যমে ক্লাসিক ডেস্কটপ ব্যবহার করতে হবে।   পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ, আশা করি উবুন্টু ব্যবহারকারীদের উপকারে আসবে 🙂

comments

13 কমেন্টস

  1. আমার কাছে Unity টাই ভালো লেগেছে। লিনাক্স এখন আমার সব কাজের সঙ্গী। উইন্ডোজ এখন শুধুই গেম খেলার জন্য। আজকে সকালে অভ্র ইন্সটল করলাম, এর আগেও করেছি কিন্তু ফোনেটিক এ লিখতে পারতাম না। এখন পারছি, আর কি লাগে। ওডেস্ক এ ছোট খাটো কাজ টাজ করি। কিন্তু ওডেস্ক এর আগের টিম এপ্লীকেসান(লিনাক্স এর জন্য) টা একেবারেই বাজে ছিল। আজকে ভাবলাম ওদের কে এই ব্যপার এ একটা মেইল করবো কিন্তু গিয়ে দেখি ভারসন টা আপডেট হয়েছে যেটাতে উইন্ডোজ এর মতোই সব রকম অপসন আছে। লে হালুয়া!!! এখন ওডেস্ক এর কাজ ও উবুন্টু তে করা যাবে। কি মজা। 😀 😀 😀
    LAMP Server ইন্সটল করে কিভাবে কাজ করতে হয় এ ব্যাপারে আপনার কাছ থেকে একটা টিউন আশা করতেছি। নিরাশ করবেন না প্লিজ।

    • আমার কাছে Unity তেমন একটা ভাল লাগেনি। আমি উবুন্টু উইন্ডোজ দুটোই আপাতত ব্যবহার করছি। সামনে জানালাটা একেবারেই ছেড়ে দেবার চেষ্টায় আছি !
      আর আমি কখনো LAMP Server ইন্সটল করে দেখিনি তাই এই ব্যাপারে এখন পোস্ট দিতে পারছিনা, দুঃখিত। 🙁
      আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

      • আমি নিজেও উইন্ডোজ এবং উবুন্টু দুইটাই ব্যাবহার করছি। Unity র ডকটা খুব ভালো লাগছে আমার কাছে। তাছাড়া তেমন কোন চেঞ্জ নেই ক্লাসিক এর সাথে।

        ধন্যবাদ।

    • প্রথমে উইন্ডোজ ইন্সটল করুন। আর যদি উইন্ডোজ আগেই ইন্সটল করা থাকে তাহলে দুটো আলাদা পার্টিশন তৈরি করুন, পার্টিশন যেন NTFS হয়। একটা পার্টিশন ২ জিবি রাখুন, আরেকটা মোটামুটি ১০-১২ জিবি অথবা আপনার হার্ডডিস্কে জায়গা কম থাকলে ৮জিবিতেও চলবে। এরপর উবুন্টুর সিডি দিয়ে অথবা Universal USB Installer এর সাহায্যে ফ্ল্যাশড্রাইভ/পেনড্রাইভের দিয়ে বুট করে উবুন্টু ইন্সটল দিন। পার্টিশন ম্যানেজার আসলে আপনার তৈরি করা ২জিবি পার্টিশনটার Mount Point এ “Swap” দিন এবং ৮জিবি পার্টিশনটার Mount Point “/” দিয়ে ৮জিবি পার্টিশনটাতেই ইন্সটল করুন। উবুন্টুর সাথেই বুট ম্যানেজার দেয়া আছে। ইন্সটল শেষ হলে প্রতিবার কম্পিউটার চালু করার সময়ই উইন্ডোজ বা উবুন্টু বাছাই করে নিতে পারবেন। 🙂

    • এটা যার যার ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবুও লিনাক্স ব্যবহারের ফলে পাইরেটেড উইন্ডোজ ছেড়ে “পাইরেট” খেতাব থেকে তো মুক্তি পাচ্ছি ! এটাই মনের শান্তি :mrgreen:
      আর উবুন্টু ভাল না লাগলে রাসেল ভাই মিন্ট ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

    • হ্যা, Ubuntu এর ডিভিডি কিনতে পাওয়া যায়। মাল্টিপ্লান সেন্টার অর্থাৎ এলিফ্যান্ট রোডের ইসিএস কম্পিউটার সিটিতে গেলেই পাবেন 🙂

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.