ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ডাক বিভাগকে তিনটি প্রকল্পর মাধ্যমে আধুনিক করা হচ্ছে। এ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে জনগণ অধিকতর উন্নত ডাক সেবা পাবে এবং গ্রাহকরা ঘরে বসেই চিঠির ট্র্যাকিং এন্ড ট্রেসিং এর মাধ্যমে চিঠির গন্তব্যসহ যাবতীয় তথ্য জানতে পারবে।

তারানা হালিম বলেন, পোস্ট ই-সেন্টার ফর রুরাল কমিউনিটি শীর্ষক  প্রকল্পর আওতায় বর্তমানে ৫ হাজার ৫০৬টি ডাকঘরে  ই-সেন্টার চালু করা হয়েছে। আগামী ২০১৭ সালের জুন মাসের মধ্যে  ৮ হাজার ৫০০টি পোস্ট অফিসকে ই-সেন্টারে রুপান্তরের পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি বলেন, পোস্ট ই-সেন্টারের মাধ্যেমে গ্রাম ও শহরের মধ্যে ডিজিটাল ডিভাইড দূর হবে, গ্রাম অঞ্চলে কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে। গ্রাম পর্যায়ে পোস্ট ই-সেন্টারে ইন্টারনেট সুবিধা ব্যবহার করে বিভিন্ন পরীক্ষার ফলাফল, কৃষি, শিক্ষা ও চিকিৎসা সংক্রান্ত তথ্য জানতে পরে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্রাম থেকে অনলাইনের সুবিধাদি, ওয়েব ক্যামের মাধ্যমে বিদেশের আত্মীয় সজনের সাথে কথোপকতনের সুবিধা, বৈধ বিদেশ হতে আগত রেমিটেন্স এর সুবিধা প্রদান করা হবে। পোস্টাল ক্যাশ কার্ড ইএমটিএস, মোবাইল ব্যাংকিং প্রভৃতি সুবিধা ই-সেন্টারে প্রদান করা হবে।

তারানা হালিম বলেন, তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর গ্রামীণ  ডাকঘর নির্মান শীর্ষক প্রকল্পর আওতায় ১৭৩টি আইসিটি বেইজড রুরাল ডোস্ট অফিসের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ১৮০টি নতুন টেন্ডার করা হয়েছে। জুন ২০১৭ এর মধ্যে ১০০০টি তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর গ্রামীন ডাকঘর নির্মাণ করা হবে।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.