মাস শেষে ইন্টারনেটের বিল নিয়ে মাথার চুল ছিঁড়েন অনেকেই। কিন্তু প্রয়োজনের তাগিদে ব্যবহার কমানো সম্ভব না হওয়ায় হা-হুতাশ ছাড়া আর কিছু করার থাকে না। তবে একটু সচেতন ও একটু বুদ্ধিমান হলেই এই খরচ অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব। ঠিক যেন টাকা বেরিয়ে যাওয়ার ছিদ্রগুলো বন্ধ করে দেওয়া।

কম্প্রেসার ব্যবহার করুন

ফাইল আপলোড করার সময় কম্প্রেস করে নিন। এতে ডাটা ইউসেজ কমে আসবে। এই জন্য উইন্ডওজের ক্ষেত্রে সেভেন-জিপ, আইজেডআর্ক ও উইনআরএআর ব্যবহার করতে পারেন। ডাউনলোড করার সময় কম্প্রেসড ফাইলকে অগ্রাধিকার দিন। সব মিলিয়ে ডাইনলোড ও আপলোডে যত কম ডাটা খরচ করা যায়, সেই চর্চা করুন।

ফ্রি সুবিধা নিন

টেক্সট ম্যাসেজিংয়ের সময় যত সম্ভব ফ্রি সুবিধা ব্যবহারে করুন। এই ক্ষেত্রে স্মার্টফোনে হোয়াটঅ্যাপস, টেক্সটমি, বিবার ও নিমবাজের মতো অ্যাপস ব্যবহার করুন। ফেসবুক ব্যবহারের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের কয়েকটি মোবাইল কেরিয়ার ফেসবুক জিরো নামের বিশেষ সুবিধা দিয়ে থাকে। এই সুবিধা পেতে অ্যাড্রেসবারে ০(শূন্য) ডট ফেসবুক এভাবে লগইন করুন। এক্ষেত্রে ছবি বা ভারী কোন ফাইল দেখা যাবে না, তবে বিনামূল্যে ইচ্ছামত চ্যাট করতে পারবেন।

বান্ডেল কিনুন

বিচ্ছিন্নভাবে ডাটা সার্ভিস ক্রয় না করে বান্ডেল কিনুন। এতে ডাটা প্রতি খরচ কমে আসবে। প্রিপেইড ইউজার হলে নিজের ব্যবহার সম্পর্কে অনুমান করে প্যাকেজ কিনুন। মনে রাখবেন, যত বেশি খণ্ড করবেন, তত খরচ বেড়ে যাবে।

ডিসকাউন্টের খবর রাখুন

সেবা প্রদানকারী কোম্পানিগুলো প্রায় সব সময়ই কোন কোন ডিসকাউন্ট প্রদান করে থাকে। এছাড়াও বন্ধ সেবা নতুন করে চালু করলে বিশেষ সুবিধা পাওয়া যায়। অধিকাংশ গ্রাহক অফার সম্পর্কে অজ্ঞাত থাকার কারণে এই সুবিধাগুলো থেকে বঞ্চিত হন। অথচ একটি খবর আপনার খরচ কমিয়ে দিতে পারে। তাই নিয়মিত ডিসকাউন্ট ও নতুন অফার সম্পর্কে খবরা-খবর রাখুন। পারলে কয়েকটি বন্ধ সংযোগ সংগ্রহ করে রাখুন।

 

কম্বাইন্ড প্লান ইউজ করুন

যদি আপনার সাথে আরও একাধিক ব্যবহারকারী থাকেন, তবে কম্বাইন্ড প্লানকে গুরুত্ব দিন। এক্ষেত্রে সিঙ্গেল মডেম ইউজ না করে রাউডার ব্যবহার করতে পারেবেন। দেখবেন গড় হিসেবে খরচ অনেকাংশ কমে এসেছে।

অপচয় রোধ করুন

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.