বর্তমানে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের জয়জয়কার। বিশ্বব্যাপী ফেসবুক, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রামের ব্যবহারকারীর সংখ্যার দিকে তাকালেই তা বোঝা যায়।

 

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের এই রমরমা যুগে এবার বিশ্বের শীর্ষ ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউবে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সুবিধা পাওয়া যাবে।

 

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে মানুষ যেহেতু এখন সবচেয়ে বেশি সক্রিয় থাকে, তাই ইউটিউবেও এ সুবিধা ব্যবহারকারীদের জন্য যে দারুন কিছু হবে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

 

ইউটিউবে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সুবিধার আওতায় ব্যবহারকারীরা তাদের নিজস্ব চ্যানেল পেজে টেক্সট, ভিডিও, ফটো, লিংক ও পোল প্রকাশ করতে পারবেন। এবং প্রকাশ করা পোস্ট অন্য সেবাগুলোতে শেয়ার করা যাবে। যেমন ব্যবহারকারী যদি ইউটিউবে একটি মজার ছবি প্রকাশ করে তাহলে এটি একইসঙ্গে টুইটার, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও প্রকাশ করার অপশন থাকবে।

 

এ বছরের শেষের দিকে ভিডিও শেয়ারিং সাইটের পাশাপাশি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট হিসেবেও ইউটিউবের এই যাত্রা শুরু হতে পারে। ডেস্কটপ এবং মোবাইল উভয় সংস্করণে এই সুবিধা উপভোগ করা যাবে। এ লক্ষ্যে ‘ব্যাকস্টেজ’ নামে অভ্যন্তরীণভাবে পরিচিত একটি প্রকল্পের নিয়ে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ কাজ করছে বলে ভেঞ্চার বিট প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.