android-battery-backup

আগে যখন আমরা ফিচার ফোন গুলো ব্যবহার করতাম তখন আর যাইহোক ফোন অন রাখা বা চার্জ দেয়া নিয়ে অতটা চিন্তা করা লাগতো না কিন্তু এখন যারা আমার মতো স্মার্টফোন ব্যবহার করেন তাদের সবারই একটি কমন সমস্যা হল ব্যাটারি ব্যাক আপ। যত ভালো বা উন্নত মানের ব্যাটারি ব্যবহার করেন না কেন এক দিনের বেশী ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবেন না যদি কিনা ফোনটি সেইভাবে চালান।

অনেক’কেই তো ইদানিং দেখি পাওয়ারব্যাংক সাথে করে নিয়ে ঘুরে বেড়ায়। আহারে খুব কষ্ট লাগে তাদের জন্য। আপনারও কি তাদের মতন অবস্থা? উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তবে আজকে আপনার জন্য আমরা এমন সেরা ৫টি উপায় বর্ণনা করবো যেগুলো কাজে লাগিয়ে আপনি আপনার ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ আগের তুলনায় বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়ানোর সেরা ৫টি টিপস-

android-battery-backup

#১ অ্যাপস এর সীমাবদ্ধতা

সাধারণত আমরা কি করি, টেস্ট করার জন্য হোক আর অপ্রয়োজনেই হোক হাজারো অ্যাপস সেটআপ করে রাখি। একটু খেয়াল করলেই দেখবেন আপনার ফোনে এমন অনেক অ্যাপস বা গেমস আছে যেগুলো আপনি কখনো চালু করেও দেখেন না। ভালো হয় এমন আজাইরা অ্যাপস বা গেমস গুলো ফোন থেকে রিমুভ করে দিন। আপনার ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ ও বাড়বে সাথে সাথে পারফমেন্সও ভালো পাবেন।

#২ জিপিএস

জিপিএস হল এক কথায় আপনারা ফোনের ব্যাটারি খাওয়ার যম, আপনি যখন এটি ব্যবহার করবেন তখন সে একই সাথে ফোনের ওয়াইফাই, নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে আপনার লোকেশন ট্রেস করার চেষ্টা করবে। ভালো হয় প্রয়োজন ব্যতীত এটি বন্ধ করে রাখুন।

#৩ ক্লাউড স্টোরেজের ব্যবহার-

আমরা অনেকেই থার্ডপার্টি ক্লাউড সার্ভিস ব্যবহার করে থাকি, তো যেটা হয় ক্লাউড সার্ভিস সব সময় আপনার ফোনের দ্বারা সিন্স করে এবং সেটা তার সার্ভারে আপলোড করে রাখে। সেটিং এ যেয়ে সেটি ম্যানুয়ালি আপলোড করে দিন।

#৪ ব্যাটারি সেভিংস অ্যাপ-

আপনি গুগল প্লে-স্টোরে খোঁজ করলে ফ্রিতে এমন অনেক অ্যাপ পাবেন যেগুলো ব্যাটারি ইউজ কমিয়ে দিবে। আর ফ্রিতে আমার পছন্দ “DU Battery Saver” এছাড়াও গ্রিনিফি নামের একটি অ্যাপ আছে যেটি আপনার ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ বারাতে সাহায্য করবে (আমি ব্যক্তিগত ভাবে “Greenify” ব্যবহার করি)

DU Battery Saver

#৫ ডিসপ্লে ব্যাক গ্রাউন্ড-

অনেকেই তাদের ফোনে থ্রিডি বা এইচডি বাচকগ্রাউন্ড ব্যবহার করে। মনে রাখবেন একটি স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ সবথেকে বেশী ব্যবহার করে সেই ফোনের ডিসপ্লে। সর্বদা চেষ্টা করুন ডিসপ্লে ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখতে এবং সাধারন বা ডার্ক ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করুন।

#এক্সট্রা-

“ইন্টারনেট” দরকার হোক না আর নাই হোক ফোনের নেট সর্বদা অন। এই অভ্যাসটি বর্জন করুন। যখন ব্রাউজ করবেন তখন বাদে সবসময় নেট লাইন অফ রাখুন দেখবেন ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়বে।

উপরের টিপস গুলো ছিল কিভাবে আপনার ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ বেশিক্ষণ রাখবেন তার উপর। হ্যাঁ আপনার যদি ফোন চার্জ দেয়া বা ব্যাটারি সংক্রান্ত কোন সমস্যা না থাকে তবে কোন কথায় নেই।

তবে আমার জানা মনে এমন অনেকেই আছেন যারা তাদের ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ নিয়ে মোটেও খুশি না। আর তাদের কথা চিন্তা করেই আজকের এই পোস্ট আশা করি আপনাদের কাজে দিবে।

আচ্ছা আপনি কোন ব্র্যান্ডের ফোন ব্যবহার করেন? আর আপনার ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কেমন থাকে? জানাবেন আমাদের কমেন্ট বক্সে 🙂 !

comments

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.