পৃথিবীতে এক এক জন ব্যাক্তি এক একটা বিষয় নিয়ে কাজ করে। আপনি যখন কোন ওয়েব সাইট ভিজিট করেন বেশ কিছু বিষয় কিন্তু চোখের সামনে ভেসে ওঠে। ওয়েব সাইটের কন্টেন্ট ছবি বা বিষয়বস্তু থেকে সেই ওয়েব সাইটের একটি ব্যক্তিত্ব আপনার চোখে ফুটে ওঠে। সেখানে মূলতঃ কি উদ্দেশ্যে কাজ করা হয়েছে তা সহজবোধ্য হয়।

2010-09-15_050921

আর এ বেপারটার প্রতি যাদের আগ্রহ আছে তারা কিন্তু সেই সাইটে জরিত হয়ে যায়। Bill Slawski তার একটি লেখায় প্রশ্ন করেছেন আপনার ওয়েবসাইটে কি ধরনের ব্যাক্তিত্ব ফুটে ওঠে? এখানে তিনি অনেকগুলো প্রশ্ন করেছিলেন তার কয়েকটা অনেকটা এরকমঃ

  • ১. আপনি কোন একটি ওয়েব সাইটের দিকে গভীরভাবে তাকালে কি সাইটের ব্যক্তিত্ব খুজে পান?
  • ২. ওয়েব সাইটটি কোন ধরনের জনগোষ্ঠির জন্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে? শিশু-কিশোর, যুবক, বৃদ্ধ, নারী বা পুরুষ?
  • ৩. এটা কি এমন কোন সার্ভিস দেয় যার বিপরীতে কোন টাকা পয়সার লেন-দেনের বেপার আছে?
  • ৪. ওয়েবসাইটটিতে কি বন্ধুসুলভ আলোচনা হয় – নাকি অবিভাবক সুলভ কথপোকথন?

আপনার চার পাশের পরিবেশের কথা ভাবুন, বন্ধুদের আড্ডার কথা ভাবুন- সেখানে সবার মাঝে আপনার সম্পর্কে একটা ধারণা সৃষ্টি হয়। আপনি কি পছন্দ করেন কি পছন্দ করেন না তার একটা বেপার থাকে। আর এ কথাটা মনে রেখে আপনার পরিবারের ও আস-পাসের লোক জন আপনার সাথে চলাফেরা করে। ওয়েবসাইটের বেপারটাও অনেকটা এরকম।

নিজের সম্পর্কে অনেকে বলে আমি এটা করি,সেটা করি – আমরা অনেক সময় বলি তুমি কি কর তা না বলে করে দেখাও। ওয়েবসাইটের বেপারেও বিষয়টা এরকমই । আপনার ওয়েবসাইটে আপনার সম্পর্কে যদি বলে আমি ফ্রিল্যান্সার ওয়েব ডিজাইনার, আইফোন এপ্লিকেশন ডেভলপার বা অন্যকিছু সেটা কি আপনার ব্র্যান্ড প্রকাশ করবে নাকি কোন একটি কাজের বর্ণনা দিয়ে, ডেভলপমেন্টের বাস্তব লিংক দিয়ে প্রকাশ করলে সেটা আপনার সঠিক পরিচয় প্রকাশ করবে?

অবশ্য ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে বাড়তি কিছু আয়োজন করাও দরকার হয়। কোন একটি প্রতিষ্ঠানটি যারা উৎছিষ্ট বস্তু থেকে বিভিন্ন দ্রব্য বানায় (ধরা যাক রিসাইকেল্ড প্লাষ্টিক শিল্প ) তাদের ওয়েবসাইটে তাদের কর্ম পদ্ধতি থাকতে পারে এবং পরিবেশ বান্ধব কিছু ছবি থাকতে পারে।

ব্র্যান্ড গঠনের প্রয়োজনীয়তার উপরে আমার আরও কিছু কথা আছে। ওয়েবসাইট ডিজাইন ও রিডিজাইনের সময় বেপারগুলো অবশ্যই খেয়াল রাখা দরকার। আর অনেকে সব কিছুকেই তার ওয়েবসাইটটিতে প্রকাশ করতে চায়। আমি এর বিপক্ষে। নানা মূখি কর্মকান্ডের একটা দিক প্রকাশ করতে পারেন।

অনেকে আমার লেখার মধ্যে একটা ভিন্নধর্মী আমেজ পায় এবং আমাকে বেপারটা জানায়। আমি কি সব সময় এই রকম লিখি? না, আমি অনেক রকম লেখাই প্রথমআলো ব্লগ ও সামহোয়ারে লিখি কিন্তু সেটা যে আমি – তা প্রকাশ করি না। যারা আমাকে অনেক ভালভাবে চেনে তারা বেপারটা ধরে ফেলতে পারে। তাই একটি ওয়েবসাইটে সবকিছু প্রকাশ করাটাও ব্র্যান্ডিং ও ব্যাক্তিত্বের বাধা।

comments

5 কমেন্টস

  1. পোষ্ট টির বিষয় গুলোর সাথে আমি ও একমত। ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য। আরো ভালো ভালো পোষ্ট করার জন্য শুভ কামনা রইলো টিউটো ভাই।

  2. চমৎকার ভাবে বর্ননা দিয়েছেন,
    ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা যে ব্লগিংযের অংশ হতে পারে, তার সফল প্রমান আপনি দিয়েছেন মাহাবুব ভাই
    শুভ কামনা করছি, আরো অনেক দূর এগিয়ে যাবার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.