আপনার ইন্টারনেটের পেছনে আপনি যত টাকা খরচ করেন সে পরিমাণ কি ইন্টারনেটের গতি পাচ্ছেন? একটি দুর্বল ওয়্যারলেস সংযোগের সাহায্যে একটি পেজ লোড হতেই অনেক সময় নেয় সেই সাথে কোন কিছু ডাউনলোড করতে চাইলে অপেক্ষা করতে হয় অনেকক্ষন। সুতরাং এই ধরণের দুর্বল ওয়্যারলেস সংযোগের পেছনে অযথা টাকা নষ্ট করার আসলে কোন অর্থই হয়না তবে কিছু সহজ ও ছোট্ট উপায় অবলম্বন করে বাড়াতে পারেন আপনার ওয়াইফাই সংযোগের গতি।

ওয়াইফাই সংযোগের ক্ষেত্রে সাধারণত ইন্টারনেট গতি দেয়াল, আসবাবপত্র, অন্যান্য ইলেকট্রনিকস্, এবং এমনকি মানুষ দ্বারাও ব্যাহত হতে পারে। সৌভাগ্যবশত, ইন্টারনেট গতি বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন সহজ কৌশল আছে।

ওয়াইফাই সংযোগের গতি বাড়ানোর ৫ টি উপায়ঃ

images2

১)রাউটারের লোকেশন পরিবর্তন

ওয়াইফাই সংযোগের গতি বাড়ানোর সহজ উপায় হল রাউটারের অবস্থান পরিবর্তন বা অবস্থানের মাঝে সমন্বয় করা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, রাউটার বাড়ির ভেতরে আসা ইন্টারনেট তারের কাছাকাছি রাখা হয়। বেশিরভাগ রাউটারের অ্যান্টেনা সর্বতোমুখী হয় ফলে সবদিকে সংকেত পাঠানো ও রিসিভ করা সম্ভব হয়। তাই রাউটারের অবস্থান এমন স্থানে হওয়া উচিৎ যেখান থেকে রাউটার সবদিকে সংকেত পাঠাতে পারে।

২) ওয়্যারলেস রাউটারের সম্মুখে একটি উন্নত এন্টেনা যোগ করুন(বহির্গামী)
কখনও কখনও রাউটারের অবস্থান পরিবর্তন করে ইন্টারনেটের গতি উন্নত করা সম্ভব হয়না। এইক্ষেত্রে কর্মক্ষমতা উন্নত করার জন্য অ্যান্টেনা পরিবর্তন পরবর্তী পদক্ষেপ হতে পারে। যদি একটি রাউটারের চারপাশে অনেক দেয়াল এবং অনেক বাধা থাকে তবে সেইক্ষেত্রে একটি এক্সটারনাল এন্টেনা রাউটারের সামনে সঠিকভাবে পজিশনিং করে রাউটারের গতি বাড়াতে পারবেন।

৩) ওয়্যারলেস ডিভাইসে একটি উন্নতমানের এন্টেনা যোগ (অভিমুখি)

কিছু কিছু ওয়্যারলেস ডিভাইসে উন্নতমানের এন্টেনা প্রতিস্থাপন করে উন্নত গতি অর্জন করতে পারেন। অবশ্যই এটা স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটের জন্য একটু কঠিন, কিন্তু ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটারের ক্ষেত্রে সহজেই এক্সটারনাল এন্টেনা যুক্ত করে ওয়াইফাই সংবেদনশীলতা এবং পরিসীমা বৃদ্ধি করা সম্ভব।

৪)একটি ওয়্যারলেস রিপিটার যোগ করুন

একটি নেটওয়ার্কের পরিসীমা প্রসারিত করতে একটি ওয়্যারলেস রিপিটার যোগ করতে পারেন যা রাউটার এবং সংযুক্ত ডিভাইসের মধ্যে একটি সেতু হিসাবে কাজ করে। ১০০ ডলারের মধ্যেই অনেক ভালো ভালো রিপিটার বাজারে পাওয়া যায়।

৫) বেকগ্রাউন্ডের কাজ বন্ধ করুন

একটি নেটওয়ার্কের গতি বেকগ্রাউন্ডে চলাকালীন একাধিক কাজের জন্য স্লো হতে পারে। ব্যবহারকারীর কম্পিউটার, ট্যাবলেট, বা ফোনের বেকগ্রাউন্ডে যদি একধিক প্রোগ্রাম একাধারে চলতে থাকে তবে ইন্টারনেটের গতি হ্রাস পায়। তাই ইন্টারনেটের গতি সর্বাধিক করতে এসব নোটিফিকেশন ও অব্যবহৃত অ্যাপ্লিকেশন বন্ধ করুন।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.