মানুষ স্রষ্টার এক মহা-বিস্ময়কর সৃষ্টি। মানব দেহের জটিল রহস্যের অতি সামান্য অংশই মানুষ আবিস্কার করতে সক্ষম হয়েছে। তেমনি এক রহস্যজনক তথ্য নিয়ে আজকের এই লেখা। জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত এই সময়কালকেই মানব জীবনের আয়ু ধরা হয়। মানবদেহের মাঝে প্রাণ থাকলেই হয় মানব জীবন। অথচ অদ্ভুদ সত্য এটাই যে আমাদের অজান্তেই এই দেহের অধিকাংশ অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ প্রতিনিয়ত আপডেট হচ্ছে। কিভাবে? চলুন দেখা যাক –

human-brain
মানব মস্তিস্ক

মানবদেহের ক্ষুদ্রতম একক হল কোষ। দেহের প্রতিটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ অসংখ্য কোষের সমন্বয়ে গঠিত। পুরো মানব দেহে রয়েছে প্রায় ৫০ থেকে ৭৫ ট্রিলিয়ন কোষ। সুইডেনের Karolinska Institute এর স্টেমসেল বায়োলজিষ্ট জোনাস ফ্রিসেন তাঁর দীর্ঘ গবেষণায় দেখেছেন প্রত্যেক প্রকার কোষের আলাদা আলাদা নিজস্ব জীবনকাল রয়েছে। একটি নির্দিষ্ট সময় পরে দেহের অধিকাংশ কোষই স্বয়ংক্রিয়ভাবে মারা যায় অতঃপর পূণরায় নতুন কোষের সৃষ্টি হয়। কোষের অভ্যন্তরস্থ DNA ব্যতীত বাকী সব উপাদানই পরিবর্তনশীল। মানব শরীরের একেকটি অঙ্গের বয়স একেক রকম। কোষ লেভেলের এই পরিবর্তনের কারণে আমাদের দেহটাই নিত্য পরিবর্তনশীল। অর্থাৎ অামাদের দেহের বেশিরভাগ অংশই পরিবর্তনশীল। অাসুন দেখি তাহলে কোন প্রকারের কোষ কতদিন আয়ু প্রাপ্ত হয়।

 

কোষের প্রকার আয়ুস্কাল
মস্তিস্ক অপরিবর্তিত থাকে
চক্ষু অপরিবর্তিত থাকে
হৃদপিন্ড ২০ বছর
লিভার বা যকৃৎ ৫ মাস
ফুসফুস ২ থেকে ৩ সপ্তাহ
অস্থি বা হাঁড় ২৫-৩০ বছর
লাল রক্ত কোষ ৪ মাস
মলাশয় ৩-৪ ‍দিন
পাকস্থলীর আস্তর ২ দিন
ক্ষুদ্রান্ত আস্তর ১ সপ্তাহ বা কম
নখ ৬-১০ মাস
চুল ৩-৬ বছর
রক্তের প্লাটিলেট ১০ দিন
শুক্রাণু ২-৩ দিন
ত্বকের উপরিভাগ ২-৪ সপ্তাহ
লিম্ফোসাইট(স্বেত রক্ত কোষ) ২ মাস- ১ বছর (সর্বোচ্চ পরিবর্তনশীল)
মাইক্রোফেজ মাস – বছর
এন্ডোথেলিয়াল কোষ মাস – বছর
অগ্ন্যাশয় ১ বছর বা ততোধিক

 

আজ এ পর্যন্তই। আমার অন্যন্য লেখাসমুহ পড়তে ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তর.কম এ। আপনাদের যে কোন প্রশ্ন বা তথ্য জানতে রেজিষ্ট্রেশন করুন

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.