অনুশীলনই যথেষ্ট

এই তো গোটা পৃথিবীবাসী ভুগছে অলিম্পিক জ্বরে।কেউ তাদের মনের প্রিয় খেলোয়ারটিকে স্বর্ণজয়ী হতে দেখে হয়ে পড়ছেন আবেগময়, আবার কেউ বা হয়ে পড়ছেন হতভম্ব। আচ্ছা বাদ দেয়া যাক তাদের এই আখ্যান। মনে করুন তো, একজন স্বর্ণ জয়ীর চাইতে কি একজন রৌপ্য পদকজয়ী পরিশ্রম কম করেছিল? কিংবা রৌপ্যজয়ীর চাইতে কম অনুশীলন করেছিল ব্রোঞ্জ বিজয়ী? তা নিশ্চয়ই নয়।

প্রায় ৩০০০ অ্যাথলেটদের নিয়ে গবেষণা করার পর জানা গিয়েছে যে, সাফল্য কখনোই তাদের অনুশীলনের ওপর নির্ভর করে ধারণা করা যায় না।

১৯৯৩ সালে সুইডেনের মনস্তত্ববিদ অ্যান্ডার্স এরিকসন তার একটি প্রবন্ধে শিক্ষানবিস সংগীতজ্ঞ ও তাদের শিক্ষকদের ওপর গবেষণা করে একটি প্রবন্ধ রচনা করেছিলেন। এ প্রবন্ধে তিনি তাদের মধ্যে তুলনা করবার জন্য বেছে নেন কত ঘন্টা তারা অনুশীলনের মাধ্যমে নিজেদের মগ্ন রাখে। নানা ধরনের খেলাধূলা, দাবা ও চিকিৎসা বিজ্ঞানে সাফল্যকে তিনি বলেন যে যারা যতটুকু পরিশ্রম করবে, তারা ঠিক ততটুকু সাফল্যই অর্জন করবে। এটা নির্ভর করে কতটা সময় তারা তাদের ঐ কাজের পেছনে ব্যয় করে থাকে।

কিন্তু বর্তমানে এসে দেখা যাচ্ছে দৃশ্যপট কিছুটা ভিন্নই। মনস্তাত্বিক দিকগুলো বিবেচনা করে একটি নতুন গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে অনুশীলন কেবলমাত্র একটি চাবি হতে পারে আপনাকে সাফল্যের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেয়ার ক্ষেত্রে। ব্রুক ম্যাকনামারা নামক একজন মনোবিজ্ঞানী বলেন,

“কমবেশি অনুশীলনের মাধ্যমে আপনার ক্রিড়াশৈলী উন্নত হবে। কিন্তু যখন আপনি সাফল্যের প্রায় দোরগোড়ায় পৌঁছে যাবেন তখন অন্যান্য নানা দিক সামনে চলে আসবে সাফল্য পাবার জন্য। তখন আপনি অনুভব করতে পারবেন যে কেবল অনুশীলনই যথেষ্ট নয়।”

ম্যাকনামারা তার সহযোগীদের নিয়ে যে গবেষনা করেছেন, তাতে ২৭৬৫ জন অ্যাথলেটের মোট অনুশীলনের সময় হিসেব করা হয়েছিল। তারা এসব অ্যাথলেটদের নানা অর্জনকেও তাদের গবেষণার আওতায় রাখেন। মোট সময়, কতটুকু রেটিং তারা বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে পেয়েছেন এবং উন্নত নানা গ্রুপে তাদের কাজ কেমন ছিল তা নিয়েও গবেষণা করেছেন তারা। কিন্তু তারা অলিম্পিকে এসে যখন সবচেয়ে সেরা প্রতিযোগীদের নিয়ে একই গবেষণা করেন, তখন তারা দেখতে পান যে তাদের সাফল্যের পেছনে অনুশীলনের অবদান কেবল ১ শতাংশ।

“এটাই আপনাকে বলে দেবে যে অনুশীলন খুবই গুরুত্বপূর্ন, কিন্তু এটা আপনাকে কে ভাল আর কে সবচাইতে ভাল তা সম্পর্কে কোন শেষ অবস্থান দিতে পারবে না”, বলেন ম্যাকনামারা।

 

 

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.