ওয়ান্স এগেইন আমি Scorpione Chief । আজকে আপনাদের সামনে আমি উপস্থিত হলাম এক ভিন্ন ধর্মী পোস্ট নিয়ে। জানি না আপনারা বিষয় টাকে কিভাবে একসেপ্ট করবেন। আজকের পোস্টটি মাইন্ড হ্যাকিং এর ভিন্নধর্মী পর্যায়। এটি একটি জাতির উদ্দেশ্যে সচেতনমূলক পোস্ট। আপনাদের আগের পোস্টটে আমি বলেছিলাম মাইন্ড হ্যাকিং নিয়ে সিরিয়াল বাই একটা সিরিজ করব এবং পোস্ট গুলো হয়ত আমার বাস্তবিক লাইফ থেকে হবে না হয় অন্যের থেকে কালেক্ট করা। আজকের এই পোস্টটিতে দেখাবো কিভাবে মিষ্টি ভাবে বিভিন্ন অনলাইন মার্কেট প্লেস আমাদের মাইন্ড হ্যাক করে চলেছে। আজ এই পোস্টটি অর্ক রহমান যার হয়ে আমি শেয়ার করছি। তিনি আমাকে ফেসবুকে প্রমান সহ ধারনা দেন আমি লজিক দিয়ে বিষয় গুলোকে বোঝার চেষ্টা করি এবং প্রমান গুলো অনুধাবন করি। প্রমান সহ আজকের পোস্টটি আমি আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব। পোস্টটি অনেকটা ভিন্ন ধর্মী আমি আগেই বলেছি এবং এটি অন্যধরনের হ্যাকিং রিলেটেড। প্রসঙ্গত আমি আমার মত করে আমার চিন্তাধারায় তার হয়ে আপনাদেরকে বাস্তবের মুখোমুখি করার চেষ্টা করব। সাথেই থাকুন নিন কিছু সময়, আমি আপনাদের কাছ থেকে কিছু মূল্যবান সময় প্রার্থনা করছি। অভারঅল ২০-৩০ মিনিট সময় না নিয়ে পোস্টটি পরতে বসবেন না। সমস্ত লাইন ওয়ার্ড মন দিয়ে পড়ুন।

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (1)

আপনি জানেন কি আজ আমাদের জাতি এতো পিছনে কেন? এর একমাত্র কারন হচ্ছে আমাদের মাঝে দুর্নীতির মনোভাব প্রবল। আমরা একে অপরকে অনেক হীন মনে করি। যখনি কেউ উন্নতির শীর্ষে চলে যায় তখনি আমরা আমাদের অতীতকে ভুলে যাই। আর হ্যাঁ আমরা একে অপরের উপকার তো দূরে থাক ক্ষতি করতে অনেক স্বাচ্ছন্দ্য বদ করি। প্রত্যেকটা কাজেরি পসেটিভ ও নেগেটিভ দিক উভয়ই থাকে। কিন্তু আমরা সর্বদা ওই কাজটির নেগেটিভ দিকটি গ্রহণ করি। এক জন আরেকজন কে বাঁশ দিতে পারলে নিজেকে নিয়ে অনেক গর্ব করি। এর মাধ্যমেই আমরা যে অনেক ছোট মনের তার পরিচয় দি। আজকে পোস্টটি এক এক জনের কাছে এক এক রকম লাগবে। কারোর কাছে গ্রহণযোগ্য নাও পেতে পারে। কেউ হয়তোবা বিষয়টা নিয়ে আজে বাজে কমেন্ট ও করবেন। কিন্তু তারপর আমি জানি আজকের এই পোস্টটি অবশ্যই কারো না কারোর উপকারে আশবেই। এই পোস্টটি থেকে যদি পয়েন্ট সামথিং পারসেন্টিজ ও উপকারিত হয় তাহলে আজকের পোস্ট ও আমি সার্থক। আজকের সম্পূর্ণ প্রক্রিয়ার প্রতি কারা দায় বদ্ধ তার সম্পূর্ণ ভাঁড় আমি পাঠকদের প্রতি ছেড়ে দিলাম। জাতি কতো নিচে নামলে একজন মানুষ তাদের জাতির উদ্দেশে এভাবে বলতে পারে। এবার বুঝলাম হিটলার কেন তার জাতিকে ধংশ করার জন্য উঠে পরে লেগেছিল। তার একটা উক্তিও ছিল যে, “আমি কিছু অসম্পূর্ণ কাজ রেখে যাচ্ছি সেই অসম্পূর্ণ কাজের জন্যে এই পৃথিবী আমাকে সন্মানের সাথে স্বরণ করবে আর আমি যে ইহুদিদের হত্যা করে ভুল করিনি সেটার স্বীকৃতি আমি অবশ্যই পাবো আমার অসমাপ্ত কাজেই আমাকে সেই স্বীকৃতি এনে দিবে” চিন্তা করতে পারেন জাতি কতটা নিচ হলে এভাবে জাতির প্রতি এমন ঘৃণা জন্মায়। আসলেই প্রতারনা কতদূর হলে জাতি হবে নির্লজ্জ!

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (2)

আপনাদের কাছে বিষয়টা হয়তোবা সামান্য হতে পারে কিন্তু আসলেই প্রতারণা যে কতোটা আগ্রাসী আপনি একটু ভাবলেই বুঝতে পারবেন। এখানে শুধু আমি নই আরও কতো মানুষ যে প্রতারিত হচ্ছে আপনি একটু লজিক খাটালে বুঝতে পারবেন। এখানে এখনি-ডটকম akhoni.com যদি আমার দ্বারা ১০% টাকা অন্যভাবে নিতে সক্ষম হয় তাহলে আপনাদের কাছ থেকে কেন নয়। ব্যাপারটা ১০% নয় ব্যাপারটা তারা কত মানুষ থেকে এবং কত টাকা  তাদের এই সিস্টেম অফারের বাগ বলে হাতিয়ে নিচ্ছে। মনে রাখবেন “ছোট ছোট বালু কণা, বিন্দু বিন্দু জল গড়ে তোলে মহাদেশ সাগর অতল”। আকর্ষণ দেখিয়ে যখন একটা আমজনতাকে তাদের সাইটে নিচ্ছে এবং সাইট থেকে অনেক প্রোডাক্ট ব্রাউজ করে যখন একটা ব্যাক্তি কিছু প্রোডাক্ট অর্ডার করছে এবং যখন তাদের থাকা অফারকেই তারা বাগ বলে ব্যাক্তিকে অর্ডারটাকে আবার রিঅর্ডার করতে বলে তখন বিষয়টি কেমন দাঁড়ায়? প্রসঙ্গত বাংলাদেশের মত একটা দেশে ব্রউজিং চার্যটাও সীমার উর্ধে। আপনি কখনই চাইবেন না আপানার অনেক কষ্ট করে খুজে বের করা অর্ডারটাকে ১০% লেসের জন্য আবার রিঅর্ডার করতে। ঠিক এভাবেই প্রতারণার শিকার হচ্ছে অনেকে। কেউ প্রতিবাদ করে কেউ করে না। অনেকে ভাবে লাভ কি এখানে লাভের পক্ষে যুক্তির শেষ নেই। আপনি আপনার জন্য নয় অন্য এক মানুষের জন্য ভাবুন তারা যেন আপনার মত হেরেজের শিকার না হয়। মনে রাখবেন সময় অনেক মূল্যবান বস্তু। আমরা জাতি হিসেবে এর মুল্য দিতে না পেরে আজ আমরা এতোটা পিছনে। এখন ঘটনায় আশা যাক।

আমাদের অনলাইন মার্কেটপ্লেস

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (1)

আমি গত  ২৭/৭/২০১৫ তে একটা পন্য অর্ডার করি এখনি-ডটকম akhoni.com থেকে। আপনারা যারা অনলাইনে কেনা কাটা করেন তারা চিনেই থাকবেন। আমিও আর কয়েকজনের মত মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে। যারা মধ্যবিত্ত পরিবারের তারা বুঝতেই পারছেন সামান্য কিছু টাকাও কতোটা মূল্যবান। যাই হোক আমি অর্ডার করি এবং তাদের সমস্ত প্রসেস কমপ্লিট করি। আমি তাদের ক্যাশ ওন ডেলিভারি চুজ করি। এবং একটা পর্যায়ে কুপন কোড সাযেস্ট করলে আমি আমার কাছে থাকা কুপন কোডটি এপ্লাই করি। এবং সমস্ত প্রক্রিয়াই সাকসেসফুল্লি কমপ্লিট হয়। অতঃপর প্রায় অনেক সময় পার হওয়ার পরেও যখন তাদের কোন কনফার্মেশন আসে না তখন আমি অনেকটা বিরক্তি হয়েই তাদের ফোন করি। একটা পর্যায়ে তাদের “নাহিদ” নামের কোন একজন ফোন কল ধরে এবং তার কাছে আমি আমার অর্ডার কনফার্ম করতে বলি। সে তখন আমাকে বিভিন্ন কথা বলে যেমন আমাকে বিকাশ করে টাকা ফুল পেমেন্ট করতে হবে অথবা আমার বাসার এড্রেস দিতে হবে। আমার মাথা এই কথা আসে না যদি আমি আগে ভাগে সব পেমেন্ট করি তাহলে সেটা ক্যাশ ওন ডেলিভারি ক্যামনে হয়। তাদের টিশার্ট গুলো পচ্ছন্দ হওয়ায় আমি কোন কথা না বাড়িয়ে বাসার এড্রেস জেনে তাদেরকে ফোন করি। অতঃপর “জুনায়েদ”/ “জাহিদ” নামের কোন একজন আমার ফোনটা পিক করে। আমি তাকে আমার বাসার এড্রেস দি। তখন সে আমাকে অবগত করে যে আমার কুপনটি নট ভেলিড। অর্থাৎ আমি যদি কুপনটি এপ্লাই করতে যাই তাহলে অবশ্যই আমার মাস্টারকার্ড থাকতে হবে। তখন আমি তাকে আমার সমস্ত প্রক্রিয়ার কথা বললাম। সে আমার কথা গুল শুনলো এবং বল্য এটা শুধু মাস্টারকার্ড বাহকদের জন্য। আমার এটাই বুঝে আসে না যদি একান্তই এই কুপন মাস্টারকার্ড বাহকদের জন্য হয় তাহলে আমার কুপনটা কেন এপ্রুভ হলো। তখন সে আমাকে বোঝানর চেষ্টা করে আসলে তাদের সিস্টেমটিতে বাগ ছিলো। তারা এখানে বিজনেস করতে আসছে নাকি ছরি বলতে না। আমার থেকে ব্যাপারটা অনেক ইগতে লাগে। একটা পর্যায়ে ব্যপারটিকে মেনে নিতে বাধ্য হই।

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (2)

সবি ঠিক ছিল হঠাৎ করে করে ২৯ তারিখ করে তাদের কোন এক ডেলিভারি এজেন্ট আমাকে ফোন করে এবং জানায় যে তাদের কোন এক ডেলিভারি বয় নাকি আমার এলাকায় আসে এন্ড আমাকে ফোনে ট্রাই করে প্রডাক্টটি দেওয়ার জন্য। আমার ফোন অলয়েস ২৪/৭ খোলা থাকে। আমি কোন ফোনি পাই নি। সাধারণত আমার দুইটা ফোন একটা ফোনের সিম আমি খুব কম ইউজ করি যাস্ট রাখার জন্য রাখি আরকি। অই নাম্বারটাই দিয়ে আমি অর্ডার ক্রিয়েট করি।  আমার ঘরটা এমন এক প্লেসে যেখানে সম্পূর্ণ থ্রিজি থাকে। কোন প্রশ্নই ওঠে না আমাকে না পাওয়ার।  কিন্তু সেই ডেলিভারি এজেন্ট আমাকে এইসকল অজুহাত দেখায়। আমি তখন তাকে অফার করি আপনার ডেলিভারি বয় এখন কথায় আমি তার সাথে দেখা করে প্রোডাক্টটা কালেক্ট করতে পারি। সে বলে তাদের ডেলিভারি বয় অলরেডি ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এবং অলরেডি সে নাকি আমাদের সিটি ক্রস করে ফেলেছে।

এখনি

আমার একটা কথা বুঝে আসে না আমার সামান্য প্রোডাক্ট দিতে তারা কেন এতো প্রেসার নিচ্ছে এবং ঢাকা থেকে আমার বাসায় লোক পাঠানোর মানে কি? আচ্ছা যাই হোক আমি তখন বুঝতে পারি তারা আমার সাথে চিট করছে।  উল্লেখ্য যে,  যখন আমি “নাহিদ” নামের ব্যাক্তির সাথে কথা বলি তখন সে আমাকে জানায় তাদের নাকি আমাদের এলাকায় থার্ড পার্টি আছে যারা কিনা পন্য বহন করে। অতঃপর সে আমাকে অফার করে যখন আপনার বাসায় গিয়ে প্রোডাক্টটি দেওয়া পসিবল না তখন সে নাকি কন্ডিশনে আমাকে কুরিয়ার করবে। ওয়ান্স এগেইন উল্লেখ্য যে, “নাহিদ” নামের কাস্টমার কেয়ার এক্সিকিউটিভ আমাকের বলেছিলেন কুরিয়ার সার্ভিসে যদি তারা কন্ডিশনে প্রোডাক্ট পাঠায় তাহলে আগে ভাগে সম্পূর্ণ পেমেন্ট করতে হবে।  ২৭/০৭/২০১৫ তারিখ পর্যন্ত তাদের কুরিয়ার সার্ভিস ফুল পেমেন্ট কন্ডিশনে চলত কিন্তু হঠাৎ করে আবার ২৯/০৭/২০১৫ এ এসে উইদআউট ফুল পেমেন্ট কন্ডিশন ক্যামনে হলো? আমি শেষ পর্যন্ত না দেখে কখনই আশাহত হই না। আমি উক্ত কুরিয়ার এজেন্টকে আবারো আমার অর্ডারটা নিয়ে কনফার্ম করি। এবং সে জানায় কালকেই আমার প্রোডাক্ট ঢাকা থেকে রওনা দিবে।

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (3)

সুওরাং এস ইউসুয়াল আমি আবার ২/০৮/২০১৫ তারিখ মানে আজ আবার তেদেরকে ফোনে ট্রাই করি। অনেকবার ট্রাই করার পর একটা আপু আমার ফোন ধরে এবং তাকে আমার অর্ডার সম্পর্কে জানালে সে আমাকে বলে আমার অর্ডার নাকি ২৯ তারিখ ক্রিয়েট হইছে। আমি তার কথা শুনে যায়গায় টাস্কি! কই কি! করলাম ২৭ তারিখ কনফার্ম ও করলাম ওইদিন ২৯ তারিখ তাদের ডেলিভারি বয় আমার এলাকাতে আসে এন্ড আমাকে না পেয়েই চলে যায় ? । ব্যাপারটা অনেক ঘোলাটে লাগে। এন্ড কিছুক্ষনের জন্য আমাকে আমার কাছেই মনে হয় আমি কোন এলিয়েন এই মাত্র বাংলাদেশে আমদানি হইছি। অথবা ইউএফও থেকে পিছলাই পরছি। তখন আপুকে আমার পূর্ব ডেলিভারি বয় অবিজ্ঞতা শেয়ার করি। তখন সে আমাকে তাদের কোন উর্ধতর কেয়ার কে কল ট্রান্সফার করে। তাকেও ব্যাপারটা বললে সে আমাকে আবারও তাদের ছরি কম্পানির কথা শেয়ার করে। একটা পর্যায়ে তার সাথে আমার একটু ঝগড়া টাইপ হয় দেন কলটা কেটে দি।

কথোপকথন এর রেকর্ড ফাইল ডাউনলোড করুন গুগল ড্রাইভ থেকে

অতঃপর কোন জুনায়েদ নামের একজন এক্সিকিউটিভ আমাকে ফোন করে এবং আমার কমপ্লেন নিয়ে আলোচনা করতে চায়। কথার এক পর্যায়ে তিনি বলেন আমি যদি বলি তাহলে সে নাকি আমার অর্ডারটা কনফার্ম করবে এবং পাঠিয়ে দিবে। তার কথা শুনে আমি তো এবার সপ্তম-মন্ডলি থেকে সোজা নিজেই কুরিয়ার হয়ে পৃথিবীতে মাত্র পদার্পণ করলাম। কারণঃ- প্রথমে ২৭ তারিখ কনফার্মেশন দেন ডেলিভারি এজেন্টকে ২৯ তারিখ কনফার্ম করলাম আবার আজ আপু বলল আপনার প্রোডাক্ট ২৯ তারিখেই গোইং অন বলল। আর আজ ০২/০৮/২০১৫ বিগ এক্সিকিউটিভ বলছে আমি বললে আজ অর্ডার কনফার্ম করবে। আসলে #WTF !!!! সম্পূর্ণটাই পেরা আর পেরা এখন নিজেকে এক চিড়িয়া মনে হয়।

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (4)

কথোপকথন এর রেকর্ড ফাইল ডাউনলোড করুন গুগল ড্রাইভ থেকে

এখন সত্যি আমি অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে আস্থা হারিয়ে ফেলছি। আমার মত কতো মানুষ আছে যারা এসব কিছু মার্কেটপ্লেস থেকে প্রতারিত হচ্ছে। জানি না এর সংখ্যা কতো? কিন্তু বেশি বলি কখনই কম হবে না। আমরা বাঙালি শুধু সহ্য করার ক্ষমতাই রাখি প্রতিবাদের নয়। ঘটনাটা অনেক সিম্পল কিন্তু এর প্রভাব অনেক প্রকট। আজ আমি প্রতারিত কাল হয়তো আপনি হবেন, অনেকে হয়তোবা অলরেডি প্রতারিত। আজ আমি দাঁড়িয়েছি কাল হয়তো আপনি। আওয়াজ দিন গড়ুন প্রতিবাদের ভাষা আজকের আপনার একটা স্টেপ হয়তো অনেক মানুষকেই রক্ষা করবে ভুল সিদ্ধান্তের হাত থেকে। মনে রাখবেন আপনার সরলতায় তারা প্রভাবিত। নীরব না থেকে হাতে নিন কীবোর্ড, মাউস! ডিজিটাল যুগ ভাবুন ডিজিটাল ভাবে।

anonymous keyboard

অ্যানোনিমাস এর ওই গানটা আজ অনেক মনে পরছে “ইল্যুমিনাটি”

ILLUMINATI, YOU’VE COME TO TAKE CONTROL
YOU CAN TAKE MY HEART BEAT
BUT YOU CAN’T BREAK MY SOUL
WE ALL SHALL BE FREE!

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (5)

WE ARE LEGION.

WE DO NOT FORGIVE.

WE DO NOT FORGET.

EXPECT US !

আমার সাথে তাদের প্রোডাক্ট নিয়ে কিছু আলোচনা.amr ডাউনলোড

আজ অনেকের মনে প্রশ্ন জাগবে প্রযুক্তি সত্যি কি আমাদের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ। মনে রাখবেন সব কিছুরি থাকে দুটি দিক একটি ভালো আরেকটি মন্দ। কিছু কিছু ব্যাক্তি, বস্তু, বা সংগঠনের জন্য প্রযুক্তি কখনই খারাপ হতে পারে না। ঐসকল ব্যাক্তি, বস্তু, সংগঠন প্রযুক্তির অপব্যবহার করছে। তাই বলে কি আমারা প্রযুক্তির ছোঁয়া থেকে দূরে থাকবো! কখনই না। এই সরকার নিয়েছে অনেক উদ্যক তার মধ্যে অনলাইন মার্কেটপ্লেস একটি যা তরুন প্রজন্মের জন্য একটি সম্মবনার প্রতিক। এমনকি করেছে ভ্যাট প্রত্যাহার। এই সুযোগে কিছু অসাধু ব্যাবসায়ি অবশ্যই তাদের স্বার্থ সিদ্ধি করতে চাইবে এটাই স্বাভাবিক। আমাদের এরুপ প্রতিষ্ঠান বা ব্যাক্তিদের ধরিয়ে দিয়ে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে একটা সুন্দর জাতি ও দেশ উপহার দিতে হবে। তারা যেন এরকম অস্বস্তিকর পরিবেশের মধ্যে বেড়ে না ওঠে।

অনলাইন মার্কেটপ্লেস (6)

আজ এই পর্যন্তই জানি যুগটেক এর অনেক পাঠক আমার পোস্টটি পরবেন। এখানে অনেকে আছেন যারা কোন না কোন ভাবে প্রতারিত। আজ আপনার কাছে যা সিম্পল তা অন্যের কাছে অনেক প্রবল। আপনার কাছে যা অর্থহীন অনেকের কাছে অনেক মূল্যবান। আপনি যদি দুর্বল মন মানশিকতার হোন তাহলে নক করুন আপনার হয়ে না হয় আমিই প্রচারণা করব। মিথ্যাকে চেলেঞ্জ করুন সত্যকে একসেপ্ট! তাহলেই তো গড়ে উঠবে জাতির পিতার সোনার বাংলা। “নতুন প্রজন্ম নতুন ধারনা গরে তুলি সোনার বাংলা”

সর্বোপরি এখানে “আমি” চরিত্রে ছিলেন অর্ক রহমান এবং ঘটনাটি স্বতন্ত্র।

ও আরেকটা কথা আপনার চারপাশে এসব অনিয়মের প্রমান সহ আওয়াজ দিন আমার ফেসবুক আইডিতে আমি আছি ২৪/৭ ?

নেক্সট পর্ব হবে লেজেন্ড tiger m@te টাইগার মেট-কে নিয়ে। আপনাদের সকল চিন্তা ধারার এক বাস্তব রুপ দিব আমি স্করপিওন চিফ। সাথেই থাকুন চলুন প্রযুক্তির পথে। টাইগার মেট সম্পর্কে সকল জিজ্ঞাসা কমেন্ট করুন। ইনশাআল্লাহ্‌ সকল কমেন্টের উত্তর আমি আমার পরবর্তী পোস্টটে পাবলিশ করবো। প্রসঙ্গত ২০০৭-২০১৫ আন্ডারগ্রাউন্ড হ্যাকার অভার অল ৯ বছর রানিং চলছে। #ইওএফ #OM

টাইগার মেট

স্করপিওন চিফ

scorpion chief

নক মি অন facebook | Scorpione Chief & twitter | Scorpione Chief

scorpion chief's cover

ব্যাক্তিগত ব্লগ tumblr | Scorpione Chief & wordpress | Scorpione Chief

পোস্টটি প্রথম zugtech এ প্রকাশিত

আপডেট পেতে চোখ রাখুন

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.